আজকালের প্রতিবেদন
ভারতে এখনও সবধরনের খেলাধুলো বন্ধ রয়েছে ক্রীড়ামন্ত্রকের নির্দেশে। পরবর্তী সময়ের আন্তর্জাতিক স্তরের প্রতিযোগিতার জন্য যাতে প্রস্তুত হওয়া যায়, তার জন্য আগস্ট–‌‌সেপ্টেম্বর থেকে সমস্ত বিধিনিষেধ মেনে অনুশীলন শুরুর অনুমতি চায় দেশের বিভিন্ন ক্রীড়াসংস্থাগুলি। কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের সঙ্গে একদফা আলোচনাও হয়েছে। সেই দলে ছিলেন ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের কর্তারা। সেই আলোচনার ভিত্তিতে আইএসএল পরিচালন সমিতি এফএসডিএল নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে নতুন মরশুমের খেলা শুরু করার ব্যাপারে আশাবাদী। ২২ নভেম্বর আইএসএল শুরু লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হচ্ছে। 
করোনা সমস্যার কথা মাথায় রেখে বাছাই করা কয়েকটি মাঠে দর্শকশূন্য গ্যালারিতে টুর্নামেন্ট করার পরিকল্পনা আছে। প্রি ওয়ার্ল্ড কাপ ফুটবলে কাতারের সঙ্গে ভারতের ম্যাচ রয়েছে ভুবনেশ্বরে ৮ অক্টোবর। এরপর ১৭ নভেম্বর কলকাতায় ভারত–‌‌আফগানিস্তান ম্যাচ হওয়ার কথা। তারপর আইএসএল শুরু করা যেতে পারে, এমনটাই ভাবা হচ্ছে। 
প্রি ওয়ার্ল্ড কাপের ম্যাচে অংশ নিতে হলে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সুনীল ছেত্রীদের প্রস্তুতি শিবিরে যোগ দিতে হবে করোনা আবহের মাঝেই। ভারতীয় দল শিবির করলে আইএসএলের দলগুলোও  যাতে সেপ্টেম্বরের শেষ বা অক্টোবরের শুরু থেকে প্রস্ততিতে নামতে পারে, তার জন্য কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের কাছে একইরকম অনুমতি চাইবে। এখন একটাই প্রশ্ন, ভারতের মতো বড় দেশে ফুটবলারদের নিরাপত্তার দিকটা আঁটোসাঁটো না করে খেলা শুরুর ঝুঁকি কতটা নেওয়া সম্ভব?‌ 
ফেডারেশন সচিব কুশল দাস এই প্রসঙ্গে বললেন, ‘এখন সব কিছুই ভাবনা চিন্তার স্তরে রয়েছে। কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আগে যেমন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের অনুমতি দরকার, তেমনই খেলোয়াড়দের স্বাস্থ্যের নিরাপত্তার দিকটা সুনিশ্চিত করাও অত্যন্ত জরুরি।’ ‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top