সংবাদ সংস্থা, শারজা: পাঁচ বছর আগে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। বাঁ পায়ের হাঁটুর তন্তু ছিঁড়ে গিয়েছিল, ডান পায়ের গোড়ালিও ভেঙেছিল। আদৌ কোনওদিন হাঁটতে কিংবা ক্রিকেট খেলতে পারবেন কিনা সন্দিহান ছিলেন চিকিৎসক। দু’‌দফায় অস্ত্রোপচার হয়। সাত মাস লেগেছিল নতুন করে হাঁটতে। অথচ সেই তিনি রবিবার শারজায় রাজস্থান ইনিংসের অষ্টম ওভারের তৃতীয় বলে সঞ্জু স্যামসনের শটে নিশ্চিত ওভারবাউন্ডারি বাঁচিয়ে দেন বাউন্ডারি লাইনের বাইরে শূন্যে শরীর ছুঁড়ে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের নিকোলাস পুরান। তাঁর অবিশ্বাস্য ছয় বাঁচানোয় হতবাক ক্রিকেট বিশ্ব। 
সাহসে সবাইকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেবেন ২৪ বছরের ত্রিনিদাদ–জাত ক্রিকেটার। ঠিক কী হয়েছিল ২০১৫–তে?‌ বছরখানেক আগে এক সাক্ষাৎকারে জীবনের সেই ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা শুনিয়েছিলেন পুরান, ‘‌বালমান ন্যাশনাল ক্রিকেট সেন্টারে নিয়মমাফিক ট্রেনিং সেরে বাড়ি ফিরছিলাম। ড্রাইভ করছিলাম আমি। হঠাৎ দেখি একটা গাড়ি অন্য একটা গাড়িকে ওভারটেক করছে। ব্রেক কষায় আমার গাড়ি গিয়ে প্রথমে ধাক্কা মারে বালির ঢিবিতে। তারপর গাড়ি গড়িয়ে রাস্তায় চলে আসায় অন্য একটি গাড়ি সজোরে ধাক্কা মারে। ছিটকে রাস্তায় গিয়ে পড়ি। তারপর কিছু মনে নেই। যখন জ্ঞান ফিরল, দেখলাম অ্যাম্বুল্যান্সে রয়েছি। পা নাড়তে পারছি না। হাঁটুও নয়। চিন্তা বাড়ছিল। আবার ক্রিকেট খেলতে পারব তো?‌ ডাক্তারের সঙ্গে দেখা হতেই জিজ্ঞেস করেছিলাম। উনি নিশ্চিত ছিলেন না। আশ্বাসও দিতে পারেননি।’‌ 
পরপর দুটি অস্ত্রোপচার হয়। তারপর বেশ কিছুদিন থেরাপি চলে। যা শেষ পর্যন্ত ক্রিকেটে ফিরতে তাঁকে সাহায্য করেছে মনে করেন পুরান। আঠেরো মাসের যুদ্ধটা সহজ ছিল না। কিন্তু তাঁর অভিধানে অসাধ্য বলে যে কোনও শব্দ নেই, তা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন ২০১৯ বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ১০৩ বলে ১১৮ রানের ইনিংস খেলে। ৩৩৮ রান তাড়া করতে নেমে। 
রবিবার তাঁর অবিশ্বাস্য সেভ, শূন্যে লাফিয়ে বল ধরে আবার সেটি বাউন্ডারির এপারে পাঠিয়ে দেওয়ার উপস্থিত বুদ্ধি তাক লাগিয়েছে শচীন তেন্ডুলকার, বীরেন্দ্র শেহবাগদের। শচীন টুইট করেন, ‘‌আমার জীবনে দেখা সেরা সেভ। সত্যিই অবিশ্বাস্য!‌’‌ শচীনের টুইটের উল্লেখ করে জন্টি রোডস লেখেন, ‘‌ক্রিকেটের গড যখন এমন কথা বলছে, আর কোনও প্রশ্নই থাকে না। সর্বকালের সেরা সেভ। পুরান দুর্দান্ত। ও পাঞ্জাবের অন্য ফিল্ডারদেরও অনুপ্রাণিত করল।’‌ টুইট করেছেন শেহবাগও, ‘‌মাধ্যাকর্ষণ শব্দটাকেই ভুলিয়ে দিল!‌ পুরান, হোয়াট আ সেভ।’‌ ‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top