অলিম্পিক শুরুর আগেই টেনিস কর্তার কল রেকর্ড ফাঁস করে বড়সড় বিতর্ক তৈরি করলেন বোপান্না 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ শুক্রবার থেকে সরকারিভাবে শুরু হয়ে যাচ্ছে অলিম্পিক। কিন্তু তাঁর আগে একাধিক বিতর্ক শুরু হয়েছে। গেমস ভিলেজে করোনা আক্রান্ত অনেকেই। যার ফলে অলিম্পিক নিয়ে একটা অনিশ্চয়তা রয়েছে। এর মধ্যে আবার বিতর্কের কেন্দ্রে ভারতীয় টেনিস তারকা রোহন বোপান্না ও এআইটিএ–র (অল ইন্ডিয়া টেনিস অ্যাসোসিয়েশন) মহাসচিব অনিল ধুপর। যাঁদের ঠান্ডা যুদ্ধ নিয়ে তোলপাড় হয়ে উঠেছে ভারতীয় টেনিস।
জানা গেছে এআইটিএ–র মহাসচিব ধুপর নাকি বোপান্নাকে টোকিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করার ব্যাপারে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেন। এমনটাই অভিযোগ টেনিস তারকার। বোপান্নার দাবি তাঁকে বলা হয়েছিল দ্বিবীজ শরণের সঙ্গে তাঁর ডাবলস খেলার কোনও সুযোগ না থাকলেও আসন্ন অলিম্পিকে সুমিত নাগালের ডাবলস পার্টনার হবেন তিনি। কিন্তু শেষমেশ আর টোকিওর টিকিট পেলেন না বোপান্না। আইটিএফ (ইন্টারন্যাশনাল টেনিস ফেডারেশন) জানিয়ে দেয় ২২ জুন ছিল মনোনয়ন জমা দেওয়ার ডেডলাইন। কিন্তু বোপান্নার দাবি সেই ডেডলাইন মিস করার পরেও এআইটিএ–র মহাসচিব তাঁকে নাকি আশ্বাস দিয়েছেন টেনিসের ডাবলস ইভেন্টে তিনি নামতে পারবেন। শেষমেশ অবশ্য আইটিএফ সেই আবেদন খারিজ করে দেয়। পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, যা পরিস্থিতি তাতে কেউ অসুস্থ বা চোট পেলে তবেই মনোনয়ন পাল্টানো যাবে। আর সেখান থেকেই শুরু যাবতীয় সমস্যা। আর এদিন তো পুরো বোমা ফাটালেন বোপান্না। নিজের টুইটার হ্যান্ডলে ধুপরের সঙ্গে হওয়া কথোপকথনের রেকর্ডিং ফাঁস করে দেন বোপান্না। সঙ্গে লেখেন, ‘শুভ সকাল সবাইকে। দেখুন কীভাবে এআইটিএ–র মহাসচিব আমাকে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। প্লিজ এবার মিথ্যা বলা বন্ধ করুন।’‌ সেই রেকর্ডিংয়ে শোনা যায় বোপান্নাকে বারবার বলা হচ্ছে তিনি টোকিও অলিম্পিকে অংশ নিতে পারবেন নাগালের ডাবলস পার্টনার হিসাবে। কিছুক্ষণের মধ্যেই অবশ্য সেই পোস্ট ডিলিট করে দেওয়া হয়। তাতেও ফোন কলের রেকর্ডিং জনসমক্ষে ফাঁস করায় বড় রকমের শাস্তির মুখে হয়তো পড়তে পারেন বোপান্না। ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তদন্তে নেমেছে এআইটিএ–র এথিক্স অ্যান্ড ম্যানেজিং কমিটি। ধুপর বলে দিয়েছেন, ‘‌কল রেকর্ড করে সেটা জনসমক্ষে ফাঁস করাটা মেনে নেওয়া যায় না। প্রয়োজনে বোপান্নাকে কড়া শাস্তি দেওয়া হবে।’‌