আজকালের প্রতিবেদন- বিশ্বকাপগামী ভারতীয় দলে যথেষ্ট বারুদ মজুত রয়েছে, এমনটাই মনে করেন রবি শাস্ত্রী। পাশাপাশি দলের কম্বিনেশন কী হবে, সেটা ঠিক করা হবে পরিস্থিতি অনুযায়ী, বলেছেন ভারতীয় দলের কোচ। ১৫ সদস্যের দলে বিজয় শঙ্করকে নেওয়ার পর অনেকেই বলেছেন, ব্যাটিং অর্ডারে চার নম্বরে হয়তো তামিলনাড়ুর অলরাউন্ডারকেই পাঠানো হবে। কিন্তু শাস্ত্রীর মতে, ওই পজিশনে শুধু একজন নন, অনেকেই আছেন খেলার মতো। শাস্ত্রীর কথায়, ‘কোন জায়গায় কাকে বাছা হবে, সেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। দলে বারুদের পরিমাণ যথেষ্টই। অনেক প্লেয়ার আছে, যারা চার নম্বরে খেলতে পারে। তাই এই ব্যাপারটা নিয়ে আমি একেবারেই চিন্তিত নই। আমার মনে হয়, সবদিক বিচার করেই ১৫ জনের দল বাছা হয়েছে, যারা যে কোনও পরিস্থিতিতে খেলতে পারে। জোরে বোলারদের ক্ষেত্রে কারও চোট–আঘাত লাগলে পরিবর্ত সঙ্গে সঙ্গেই নিয়ে নেওয়া হবে।’‌
আইপিএলের সময় চোট পেয়েছেন অলরাউন্ডার কেদার যাদব। আইপিএলে একেবারেই ফর্মে ছিলেন না স্পিনার কুলদীপ যাদব। কিন্তু ভারতের কোচ বলেছেন, ‘‌চিন্তার কিছু নেই। কেদারের কোনও চিড় পাওয়া যায়নি। হাতে এখনও সময় আছে। আশা করি সুস্থ হয়ে যাবে।’‌ বিশ্বকাপের জন্য আলাদা করে কোনও প্রস্তুতির দরকার নেই, বলেছেন শাস্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘‌নিজেদের সঠিকভাবে মেলে ধরতে হবে, পরিস্থিতি অনুযায়ী তৎক্ষণাৎ সাড়া দিতে হবে। বিশ্বকাপের আগে যে চার বছর সময় পাওয়া যায়, তাতেই তৈরি হয়ে যায় দল।’‌ 
আসন্ন বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং অস্ট্রেলিয়াকে আলাদা করে গুরুত্ব দিচ্ছেন রবি শাস্ত্রী। তিনি বলেছেন, ‘‌ভারতে যখন ওয়েস্ট ইন্ডিজ খেলতে এসেছিল, সিরিজে খুব লড়াই হয়েছিল। ওরা দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছিল। তখন আবার গেল, রাসেলও ছিল না। ফলে এবার এই দলটার দিকে নজর রাখতেই হবে। অনেক প্রতিভা রয়েছে দলে। আর অস্ট্রেলিয়া ওদের সব প্লেয়ারকেই পেয়েছে। সবাই দারুণ ফর্মেও। শেষ ২৫ বছরে অস্ট্রেলিয়াই সবথেকে বেশি বিশ্বকাপ জিতেছে। কোনও বিশ্বকাপেই অস্ট্রেলিয়া দলকে দুর্বল মনে হয়নি। বরাবরই ওরা লড়াকু।’‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top