আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‘আফগানিস্তান বিশ্বকাপ জিতলে তবেই বিয়ে করব’। এমনই প্রতিজ্ঞা করেছেন রশিদ খান। দেশকে ভালবেসেই নিঃসন্দেহে এমন কথা বলেছেন আফগান স্পিনার। কিন্তু তাঁর সেই মন্তব্য নিয়ে সোশ্যাল দুনিয়ার বাসিন্দারা এভাবে মস্করা করবেন, তা হয়তো স্বপ্নেও ভাবেননি তিনি। কিন্তু নেটিজেনদের কে আটকায়। রীতিমতো সলমন খানের সঙ্গে রশিদের তুলনা টেনেছেন তাঁরা।
বিশ্ব ক্রিকেটের ইতিহাসে একেবারেই নতুন নাম আফগানিস্তান। দুটি ওয়ানডে বিশ্বকাপে (২০১৫ এবং ২০১৯) অংশ নিয়েছে ঠিকই, কিন্তু সেভাবে কিছুই করতে পারেনি। চারটি টি২০ বিশ্বকাপও খেলেছে এই দেশ। সেভাবে সাফল্য না পেলেও দলের তরুণ ক্রিকেটারদের মধ্যে লড়াইয়ের ইচ্ছাটা স্পষ্ট। তাবড় তাবড় দেশগুলির বিরুদ্ধেও অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলতে দেখা গিয়েছে রশিদ খানদের। শুধু তাই নয়, অন্যান্য দলের অভিজ্ঞ বোলারদের পিছনে ফেলে টি২০ ক্রিকেটে বোলারদের তালিকায় শীর্ষস্থানটি রশিদেরই দখলে। সেই তারকাকেই এক সাক্ষাৎকারে বিয়ে নিয়ে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ‘‌আফগানিস্তান একবার ক্রিকেট বিশ্বকাপ জিতুক। তারপরই বাগদান আর বিয়ে করব।’‌ 
স্বাভাবিকভাবেই দেশের জার্সি গায়ে খেলা যে কোনও ক্রিকেটারই বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখেন। মাস্টার ব্লাস্টার শচীন তেন্ডুলকারের কাছেও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্মৃতি মধুরতম। তাই রশিদের স্বপ্ন দেখায় কোনও ‘ভুল’ নেই। কিন্তু আফগান স্পিনারের মন্তব্য নিয়ে শুরু হয়ে যায় হাসি ঠাট্টা। আসলে অদূর ভবিষ্যতে আফগানিস্তান বিশ্বকাপ জিততে পারে, এমন কোনও সম্ভাবনাই দেখেন না ক্রিকেটভক্তরা। সেই জন্যই ট্রোলের মুখে পড়তে হয় ২১ বছরের স্পিনারকে।
অনেকে জিজ্ঞেস করেন, রশিদ কি নতুন সলমন খান হবেন? অনেকে আবার রশিদের বয়স অনেকখানি বাড়িয়ে ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ২০৫০ সালেও রশিদ বসে রয়েছেন। কিন্তু আফগানিস্তানের বিশ্বকাপ জেতা হল না। যদিও পুরোটা মজার ছলেই লিখেছেন নেটিজেনরা। 
 
 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top