আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মহাসপ্তমীর রাতে ক্রিকেটপ্রেমীরা সাক্ষী থাকলেন মুম্বইয়ের দুই পেসারের তাণ্ডবের। একজন ট্রেন্ট বোল্ট। অন্যদিকে, জসপ্রীত বুমরা। বোল্ট নিলেন চার উইকেট। বুমরা পেলেন দু’‌উইকেট। আর হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়া রোহিতের অনুপস্থিতিতেই মুম্বই ১০ উইকেটে হারাল চেন্নাইকে। আইপিএলের ইতিহাসে প্রথমবার দশ উইকেটে হারল সুপার কিংস। ফলে প্লে–অফ থেকে কার্যত ছিটকেই গেলেন ধোনিরা।
এদিন টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় মুম্বই। এরপর বোল্ট–বুমরার সামনে একের পর এক উইকেট হারাতে থাকেন ধোনিরা। প্রথম তিন রানেই চার উইকেট পড়ে যায়। এরপর দলের ২১ রানের মাথায় ফেরেন জাদেজা। ১৬ রান করে আউট হন ধোনিও। তখন চেন্নাইয়ের রান মাত্র ৩০। চাহারও ফিরে যান শূন্য রানে। এই সময় পাল্টা লড়াই শুরু করেন স্যাম কারেন। কার্যত একাই লড়াই করেন। ৪৭ বলে ৫২ রানের সৌজন্যেই চেন্নাইয়ের রান ১০০–র গণ্ডি পেরোয়। শেষদিকে কিছুটা সাহায্য করেন শার্দুল ঠাকুর (‌১১) এবং ইমরান তাহির (‌১৩*‌)। নির্ধারিত ২০ ওভারে চেন্নাইয়ের রান ওঠে ন’‌উইকেটে ১১৪। বোল্ট ১৮ রান দিয়ে একাই নেন চার উইকেট। বুমরা এবং রাহুল চাহার নেন দু’‌টি করে উইকেট।‌‌
জবাবে ব্যাট করতে নেমে রোহিতের অভাব একাই ঢেকে দেন ঈশান কিষান। ডি’‌কক–কিষানের ওপেনিং জুটিই মুম্বইকে জয় এনে দেয়। কিষান করেন অপরাজিত ৬৮ রান। তাও মাত্র ৩৭ বলে। মারেন ছ’‌টি চার ও পাঁচটি ছয়। ডি’‌কক করেন অপরাজিত ৪৬ রান। শেষপর্যন্ত ১২.‌২ ওভারেই জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয় মুম্বই।
জয়ের ফলে ১০ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে মুম্বই শীর্ষে। আর তিনবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই ১১ ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার শেষে। 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top