আজকালের প্রতিবেদন: পার্ক সার্কাসের বস্তি থেকে উত্তরণের গল্প। তাঁকে মিডফিল্ড জেনারেল বানাতে কোচ ফিলিপ ডি’রাইডারের অবদান। কোচ মার্কোস ফলোপা, আর্মান্দো কোলাসোর সময়ে ড্রেসিংরুমের দলাদলির সত্য ঘটনা প্রকাশ্যে আনা। মোহনবাগানে সই করার আসল কাহিনীটা কী। এ সমস্ত মশলায় ঠাসা মেহতাব হোসেনের আত্মজীবনী প্রকাশিত হওয়ার কথা ৫ সেপ্টেম্বর। তার আগে নববর্ষের দিন যাদবপুরের ‘লা কোমিডা’ রেস্তোরাঁয় হয়ে গেল আত্মজীবনীর প্রচ্ছদের সরকারি উদ্বোধন। হাজির ছিলেন অনেক তারকা। সকলেই মেহতাবের খেলোয়াড়ি জীবনের দায়বদ্ধতার প্রশংসা করেন। প্রাক্তন সতীর্থ আলভিটো ডি’কুনহা বলেন, ‘আমি মনে করি, মেহতাবের আরও কয়েক বছর জাতীয় দলে খেলা উচিত ছিল। ওর দায়বদ্ধতা নিয়ে কোনও কথা হবে না। এখনকার স্বদেশি ফুটবলারদের মধ্যে তা দেখতে পাই না। আমার মতে, এগারোটা মেহতাব নিয়ে কোনও টিম তৈরি হলে সেই দল বিশ্বকাপ খেলার ক্ষমতা রাখে।’ অনুষ্ঠানে ছিলেন দীপঙ্কর রায়, গায়ক শিলাজিৎ, মনোময়–সহ অনেকে। শিলটন বলেন, ‘জুনিয়রদের দারুণ গাইড করে। ওর থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।’

মেহতাব হোসেনের আত্মজীবনী ‘‌মিডফিল্ড জেনারেল’‌–এর প্রচ্ছদ প্রকাশিত হল। অনুষ্ঠানে তাঁর সঙ্গে হাজির শিলটন পাল, আলভিটো, দীপঙ্কর রায়। 
 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top