‌সংবাদ সংস্থা, বেঙ্গালুরু: হ্যাশট্যাগ ‘‌ওয়ান লাস্ট রোর’‌। পুনে–তে গত সপ্তাহে খেলতে নেমে এমনই স্লোগান দেখা গিয়েছিল লিয়েন্ডার পেজের টি–শার্টে। কেন এরকম জার্সি পরছেন, তার রহস্যফাঁস করলেন ভারতীয় টেনিস তারকা।
ওয়াইল্ড কার্ড পেয়ে বুধবার বেঙ্গালুরু ওপেনে ডাবলস খেলতে নামছেন তিনি। তার আগে মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠকে বলেছেন, ‘‌একটা ব্যাপার পরিষ্কার করে জানিয়ে দিতে চাই। যখনই আমি কোর্টে খেলতে নামি, ভেবে নিই এটাই আমার শেষ ম্যাচ। সে অস্ট্রেলিয়াই হোক বা পুনে। এটাই ওয়ান লাস্ট রোরের পিছনে আমার ভাবনা। এটা পরেই বছরের বাকি সময় খেলব। প্রতিটা টুর্নামেন্টে নিজের সেরা দেওয়ার চেষ্টা করব।’‌ একটু থেমে তাঁর সংযোজন, ‘‌যেভাবে এতদিন খেলে এসেছি, শেষ বছরেও সেভাবেই খেলতে চাই। আমার ফিটনেস যা আছে তাতে আরও দু’‌তিন বছর খেলতে পারতাম। কিন্তু এত যাতায়াতের ধকল শরীরের প্রভাব ফেলছে। আমার টিমও ক্রমশ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছে। ৩০ বছরের পরে একা একা যাতায়াত করা সম্ভব নয়। তাই ২০২০–তে নির্বাচিত কিছু টুর্নামেন্টে খেলব। যারা এতদিন আমাকে অকুণ্ঠ সমর্থন করে এসেছেন তাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই।’‌
কেরিয়ারে ১০০–রও বেশি পার্টনারের সঙ্গে ডাবলস খেলেছেন লিয়েন্ডার। বিভিন্ন পার্টনারের বিভিন্ন রকম খেলার স্টাইল। এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে অসুবিধে হয়নি?‌ লিয়েন্ডারের জবাব, ‘‌পার্টনার বেছে নেওয়াটা আমার কাছে সহজাত। নিজের শক্তি এবং দুর্বলতা ভাল করে জানি। তাই আমার যেটা দুর্বলতা, সেটা অন্য কারোর শক্তি হতেই পারে। এটা ভেবেই সতীর্থ নির্বাচন করতাম।’‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top