আজকালের প্রতিবেদন: ডুরান্ড ফাইনালের আগে ফুরফুরে মেজাজে বাগান। সেমিফাইনালে জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা নেওয়া মিডফিল্ড জেনারেল জোসেবা রয়েছেন চাপমুক্ত। রিয়েল কাশ্মীর ম্যাচে খেলা ফুটবলারদের তরতাজা করে তুলতে যুবভারতীর সুইমিং পুলে নামিয়েছিলেন বাগান কোচ ভিকুনা। সেখানে জলকেলি সেরে সাজঘরের দরজায় হেলান দিয়ে রিজার্ভ দলের অনুশীলন দেখলেন জোসেবা। 
তখনই প্রচারমাধ্যমের সঙ্গে নানা কথা বলতে বলতে আড্ডায় মজলেন স্প্যানিশ ফুটবলার। আপনি তো এখন বাগান সমর্থকদের চোখে তারকা। একরাশ হাসিতে জোসেবার প্রতিক্রিয়া, ‘‌আমি তারকা নই। মার একার কৃতিত্বে দল ফাইনালে ওঠেনি। চামোরো, সুহের থেকে রিজার্ভ বেঞ্চের কথাও বলতে হবে। জয়ের লক্ষ্যে  নামব।’‌ 
এতটাই টিমম্যান যে বললেন, ‘‌নিজে গোল করার থেকে করিয়েই বেশি খুশি হই।’‌ সাফ জানালেন, যুবভারতীর মাঠ বাগানের মাঠের তুলনায় ভাল বলেই ভাল খেলা সম্ভব হয়েছে। সেমিফাইনাল সন্ধে সাড়ে ৭টায় ছিল বলেই ১২০ মিনিট দৌড়েছে তাঁর ফুটবলাররা। ফাইনাল পাঁচটায় শুনে একটু আপসোসের সুরেই জোসেবা বলেন, সাতটায় হলেই ভাল হত। এটাও বলেন, ফাইনালে ডার্বি হলে মন্দ হত না। 
স্পেনে খেলার সময় ইনিয়েস্তার ভক্ত ছিলেন জোসেবা। তবে তাঁর সেরা মেসি। বাগানের মেসি বলে তাঁর তুলনা করতে লজ্জায় জিভ কেটে ফেললেন, ‘‌মেসির সঙ্গে কারও তুলনা চলে না। হি ইজ দ্য বেস্ট।’‌ কোচেদের মধ্যে গুয়ারদিওয়ার ভক্ত জোসেবা। 
ভারতীয় ফুটবল সম্পর্কে ধারনা পেয়েছিলেন এটিকেতে খেলে যাওয়া স্প্যানিশ ফুটবলার তিরির কাছে। মনে করেন, মোহনবাগানে এসে দ্রুত মানিয়ে নিতে পেরেছেন কোচ ও ফুটবলাররা স্প্যানিশ হওয়ায়। চামোরোর সঙ্গে বোঝাপড়া এত ভাল হল কীভাবে?‌ জোসেবা বলেন, ‘‌দুজন ভাল বন্ধু বলে।’‌ 
সেমিফাইনালে শেষ ১৫ মিনিট গোকুলামের খেলা দেখেছেন। জোসেবার মতে, গোকুলামের ‌মার্কাস‌ বেশ ভাল। ‌েহনরিও‌ একইরকম বিপজ্জনক। এদের কথা মাথায় রাখতে হবে। তবে সেটা নিয়ে ভাববেন কোচ। আমাদের কাজ মাঠে নেমে সেরা দেওয়া।’‌ গোকুলামের মার্কাস ও হেনরি আপনাকেই বাগানের সেরা অস্ত্র, গেম চেঞ্জার বলেছেন। আপনাকে আটকানোর কৌশল নিচ্ছেন প্রতিপক্ষ কোচ। এটা নিয়ে জোসেবার কোনও হেলদোল নেই। বললেন, ট্রফি জিততে আর একটা কঠিন হার্ডল টপকাতে হবে। গোকুলামের মার্কাস বলেছেন, ট্রফি জিতলে ক্যালিপসো নাচ করবেন মাঠে। আপনার তেমন কোনও সেলিব্রেশনের প্ল্যান আছে কি?‌ জোসেবা জানালেন, এমন কিছু ভাবেননি। নাচতে তিনি ভালবাসেন। তবে সেটা পার্টিতে, মাঠে নয়। ট্রফি জিতলে শনিবারের রাতের পার্টিতে সতীর্থদের সঙ্গে নাচে মাতবেন।

আগামী শনিবার ডুরান্ড ফাইনালে গোকুলামের মুখোমুখি হওয়ার আগে স্ট্যাডেলে সুইমিং পুল সেশনে খোশমেজাজে সবুজ–মেরুন ফুটবলাররা। ছবি: আজকাল

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top