আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সামনেই নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ। তার আগেই রবিচন্দ্রন অশ্বিনের মন্তব্যে তুমুল চাঞ্চল্য তৈরি হল। একটি ম্যাচে বিপক্ষ দলের প্লেয়াররা তাঁকে অপহরণ করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করলেন টিম ইন্ডিয়ার ডানহাতি এই স্পিনার। এমনকী তাঁর আঙুল কেটে নেওয়া হুমকি দেওয়া হয়েছিল বলেও অভিযোগ করেছেন অশ্বিন। 
২০১০ সালে জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হয় স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিনের। অনিল কুম্বলে অবসর নেওয়ার পরই ভারতীয় দলে অপরিহার্য্য হয়ে পড়েন অশ্বিন। টিম ইন্ডিয়াকে বহু স্মরণীয় জয় উপহার দিয়েছেন তিনি। একসময় টিম ইন্ডিয়ার হয়ে তিন ঘরানাতেই অংশ নিতেন তিনি। তবে এখন শুধুমাত্র টেস্টে দলেই সুযোগ পান অশ্বিন। 
বহুদিন আগের এক ঘটনার কথা বললেন অশ্বিন। তখন তিনি তরুণ। তাঁর কথায়, ‘‌আমার বাবার পছন্দ ছিল না। কিন্তু আমরা বন্ধুরা একসঙ্গে টেনিস বল ক্রিকেট টুর্নামেন্ট খেলতাম। রাস্তাঘাট আটকে খেলা বাবা পছন্দই করতেন না। এরকমই একদিন আমাদের ফাইনাল খেলা ছিল। আর ফাইনালে জিতলে লোকজন সেই সময়ে খুব গর্ব করত। আমি খেলতে যাব, সেই সময়েই চার–পাঁচজন রয়্যাল এনফিল্ড নিয়ে আমার কাছে  হাজির হয়। তারা প্রত্যেকেই ছিল বড় চেহারার।’‌ এরপরই অশ্বিনের সংযোজন, ‘‌ওরা এসে আমাকে ধরল। আর বলল, আমাদের সঙ্গে যেতে হবে। আমি জিজ্ঞেস করি কে তোমরা? ওরা আমাকে বলে, তুমিই তো এখানে ম্যাচ খেলবে। আমরা তোমাকে নিতে এসেছি। আমি তো খুব খুশি হয়ে গিয়েছিলাম। আমাকে নিতে রয়্যাল এনফিল্ড–এতসব আয়োজন। তারপর আমি বাইকে একজনের পিছনে বসি। আর আমার পিছনে আরও অনেকজন। ঠিক যেন স্যান্ডউইচ হয়ে গিয়েছিলাম সে দিন। আমাকে নিয়ে একটি চায়ের দোকানে গিয়েছিল তারা। এরপর খাবার অর্ডার করল। আমাকে বলল ভয় পেও না। আমরা তোমার সাহায্যের জন্য এসেছি। এরপর বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ বললাম, খেলার সময় হয়ে গেছে। এবার যেতে হবে। তখন ওরা বলল আমরা বিপক্ষ দলের লোক। আমরা তোমাকে খেলতে দেব না। যদি খেলতে যাও, তাহলে তোমার আঙুল থাকবে না। এরপর আমি তাদের বলি ঠিক আছে ম্যাচ খেলব না। তারপর ওদের সঙ্গেই বসেছিলাম। এদিকে বাবার বাড়ি ফেরার সময় হয়ে গেছে। তখন বলি এবার বাড়ি যেতে হবে। তখন ওরা আমায় বাড়ি ছেড়ে দেয়।’‌ 
 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top