অগ্নি পান্ডে: জোড়া আক্রমণের শিকার তিনি। খানিকটা কাকতালীয়ভাবেই। বুধবার বিকেলে মহম্মদ সামির স্ত্রী হাসিন জাহান যখন সামির বিরুদ্ধে যাবতীয় অভিযোগ নিয়ে লালবাজারের দ্বারস্থ, ঠিক তখনই ভারতীয় বোর্ড নতুন গ্রেডেশন তালিকা প্রকাশ করল। সেই তালিকা দেখে চমকে যেতে হয়। নেই মহম্মদ সামির নাম! না, চারটি বিভাগের কোনও বিভাগেই সামির নাম নেই বোর্ডের ই–মেলে। পারফরমেন্সের ভিত্তিতে সামিকে বাইরে রাখার কোনও ক্রিকেটীয় যুক্তি নেই।
তা হলে কেন? স্ত্রী–র আনা যাবতীয় মারাত্মক অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেডেশনের তালিকায় রাখা হল না সামিকে? ঠিক তাই। বুধবার রাতে মুম্বই থেকে বোর্ডের এক কর্তা জানালেন, ‘হ্যাঁ, সামির বিরুদ্ধে মারাত্মক সব অভিযোগ এনেছেন ওর পরিবারেরই সদস্য। আগে সেই অভিযোগ থেকে নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করুক সামি। এটা ইমেজের প্রশ্ন। দেখেননি, বেন স্টোকসকে নিয়ে ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড কী পদক্ষেপ করেছিল। ঠিক সেরকমই। বোর্ড সািমকে নির্বাসিত করেনি। কিন্তু আপাতত ওর নাম তালিকা থেকে বাইরে রেখেছে।’ বোঝাই গেল প্রয়োজনে বোর্ড কড়া পদক্ষেপ নিতে প্রস্তুত। কিন্তু এই ভারতীয় বোর্ডই বুধ–সকালে প্রাথমিক প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছিল, বিষয়টি সামির একান্ত ব্যক্তিগত এবং পারিবারিক। বোর্ড কোনও মন্তব্য করবে না। যদিও পরে বোর্ড সময়ের সঙ্গে–সঙ্গে নিজের অবস্থান বদলাল।
মঙ্গলবার সারাদিন তাঁকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। শোনা যায়নি তাঁর কোনও মন্তব্যও। বুধবার বেলায় সোশ্যাল মিডিয়ায় গোটা বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করেছেন অভিযুক্ত মহম্মদ সামি। তিনি জানিয়েছেন, ‘আমাকে নিয়ে যা সব খবর ছড়িয়েছে তা পুরোটাই মিথ্যে। আমার বিরুদ্ধে বড়সড় চক্রান্ত হয়েছে। বদনাম করে আমার খেলা নষ্ট করার চেষ্টা করা হচ্ছে।’ অদ্ভুতভাবে সামির এই মন্তব্য সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করার কিছুক্ষণের মধ্যেই স্ত্রী হাসিন জাহানের ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি অকেজো করে দেওয়া হয়। কে করলেন? হাসিন জাহানের আইনজীবী জাকির হোসেন জানালেন, ‘হাসিন কেন হঠাৎ নিজের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেবে? এটা ফেসবুক থেকেই করে দেওয়া হয়েছে। আমার তো মনে হচ্ছে সামি নিজের প্রভাব খাটিয়ে অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দিয়েছে।’
বুধবারই সকালে আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলে কলকাতার নগরপাল রাজীব কুমারের সঙ্গে দেখা করার প্রস্তুতি নিয়েছিলেন সামির স্ত্রী হাসিন। সময়মতো পৌঁছেও যান লালবাজারে। সেখানে তিনি পুলিসের দ্বারস্থ হয়েছেন। জানা গেছে, পুলিস সব অভিযোগ খতিয়ে দেখছে। এদিনও মুখ খুলেছেন হাসিন জাহান। ‘জানেন, সামি একবার শ্বশুরবাড়িতে ওর দাদার ঘরে জোর করে আমাকে ঢুকিয়ে দিয়েছিল!‌ আমি কোনওরকমে হাতে–পায়ে ধরে ঘর থেকে বেরিয়ে যাই। পাঁচ মাস ধরেই সব কিছু সহ্য করেছি। আর নয়। আমাদের মেয়ে আইরার মুখ চেয়ে আর চুপ করে বসে থাকতে রাজি নই। আমি সামিকে কিছুতেই ক্ষমা করতে পারব না।’
ভারতীয় ক্রিকেটারদের স্ত্রী–মহলে কান পাতলে শোনা যাবে, বেশিরভাগ ক্রিকেটারের স্ত্রীয়েরা জানতেন সামির সঙ্গে হাসিনের সম্পর্কের টানাপোড়েন। সম্প্রতি ২৭ ফেব্রুয়ারি সামির সতীর্থ ক্রিকেটার গোটা বিষয়টি মিটিয়ে ফেলার জন্য সস্ত্রীক সামিকে বাড়িতে ডিনারে েডকেছি‍লেন। কিন্তু তারপরেও ঝামেলা সামাল দেওয়া গেল না।‌‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top