আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমি বা এনসিএ–র সঙ্গে জড়িত ১১ জন কোচের সঙ্গে আচমকাই সম্পর্ক শেষ করে দিল বিসিসিআই। এমনকি সেই কোচেদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে তাঁদের সঙ্গে আর চুক্তি নবীকরণ করা হবে না। কিন্তু কী কারণে এত বড় পদক্ষেপ করা হল সে বিষয়ে অবশ্য কোনও উল্লেখ করা হয়নি। বোর্ডের তরফেও এই ইস্যুতে এখনও কেউ মুখ খোলেননি।
ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমি থেকে যে ১১ জন কোচকে কার্যত ছাঁটাই করা হয়েছে তাদের মধ্যে পাঁচজন ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। সেই পাঁচজন হলেন রমেশ পাওয়ার, শিবসুন্দর দাস, হৃষিকেশ কানিতকার, সুব্রত ব্যানার্জি এবং সুজিত সোম সুন্দর। এঁদের প্রত্যেককেই আলাদা আলাদা করে ফোন করে জানিয়েছেন এনসিএ প্রধান রাহুল দ্রাবিড়। এছাড়া ছেঁটে ফেলা হয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটের বড় নাম সীতাংশু কোটাককেও। 
করোনাভাইরাসের জেরে গত মার্চ মাস থেকেই ভারতে বন্ধ রয়েছে সবধরণের ক্রিকেট। পরিস্থিতি এমন যে এবার আইপিএল হচ্ছে দেশের বাইরে। বন্ধ রয়েছে ক্রিকেটের অনুশীলন। ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি এখনও। ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে সেভাবে কাজ হচ্ছে না। আর তাই কোনও কিছু আগাম না জানিয়ে চুপিসারে ছাঁটাইয়ের সিদ্ধান্ত নিল বিসিসিআই।
এই মাসেই চুক্তি শেষ হত এনসিএ–র সঙ্গে যুক্ত ১১ কোচের। যাদের বেতন বাবদ বোর্ডের খরচ হত ৩০–৫৫ লাখ টাকা। করোনার জেরে দীর্ঘদিন খেলা বন্ধ থাকায় আর্থিকভাবে যথেষ্ট ক্ষতি হয়েছে বিসিসিআইয়ের। তাই খরচ বাঁচাতেই এই সিদ্ধান্ত বলে মনে করা হচ্ছে। তবে বোর্ডের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন ছাঁটাই হওয়া কোচরা। 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top