আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বছরখানেক আগে অ্যাথলিট দ্যুতি চাঁদ ঘোষণা করেছিলেন তিনি সমকামী। পাঁচ বছর ধরে এক তরুণীর সঙ্গে সমকামী সম্পর্কে আছেন। কিন্তু দ্যুতির সেই ‘সাহসী’ স্বীকারোক্তি তাঁর জীবনে অন্ধকার ডেকে এনেছে। দিদি সরস্বতী ইতিমধ্যেই তাঁকে ঘরছাড়া করেছেন। এবার পরিবারের বাকি সদস্যদেরও বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিচ্ছেন।
গতবছর মে মাসে এশিয়াডে পদকজয়ী অ্যাথলিট জানিয়েছিলেন, ‘‌আমি আমার গ্রামেরই একটি মেয়ের সঙ্গে পাঁচ বছর ধরে সম্পর্কে আছি। ও ভুবনেশ্বর কলেজে বিএ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। আমি এমন একজনকে খুঁজে পেয়েছি যে আমার সোলমেট। আমার মনে হয় প্রত্যেকেরই এই স্বাধীনতা থাকা উচিত যে তাঁরা নিজেদের পছন্দমতো মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করতে পারেন। এটা প্রত্যেকেরই ব্যক্তিগত পছন্দ। এবং আমি এই সমলিঙ্গের সম্পর্কেই থাকতে চাই।’‌ অ্যাথলিটের এই ঘোষণা যেন ঝড় বয়ে আনে তাঁর জীবনে। তাঁর দিদি তাঁকে বাড়ি থেকে বের করে দেন। বাধ্য হয়ে নিজের সঙ্গীর সঙ্গে ভুবনেশ্বরে থাকেন তিনি। কিন্তু এবার সহ্যের সীমা ছাড়াচ্ছেন দিদি। দ্যুতির অভিযোগ, তাঁর দিদি সরস্বতী নাকি এবার তাঁর মা–বাবা এবং ছোট বোনেদেরও বাড়ি থেকে বের করে দিতে চাইছেন।
এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘‌আমি নিজের সব টাকা খরচ করে রাজস্থানে বাড়ি বানিয়েছিলাম। কিন্তু সেই বাড়িতে আমার আজ কোনও অধিকারই নেই। সরস্বতী আমার মা–বাবাকেও বাড়ি থেকে বের করে দেবে। আমি আমার ছোট বোনেদের জন্য চিন্তিত।’‌ এশিয়াডে পদকজয়ী অ্যাথলিটের দাবি, প্রেম করে বিয়ে করায় তাঁর দাদাকেও বাড়িছাড়া করেছেন সরস্বতী। তাঁকে বা তাঁর দাদাকে, কাউকেই বাড়িতে ঢুকতে দেন না দিদি। সরস্বতীর হাত থেকে মা–বাবাকে বাঁচাতে এবার আইনের দ্বারস্থ হতে চলেছেন দ্যুতি। 
 
 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top