আজকালের প্রতিবেদন: রোহলুমপুইয়ার জন্মদিন। মাঠের ধারে টেবিলে কেক রাখা। কিন্তু ইস্টবেঙ্গল ফুটবলারদের উচ্ছ্বাস নেই। গোকুলাম ম্যাচে হারের হ্যাংওভার থেকে বেরোতে পারেননি লালরিনডিকা রালতে, মার্কোস এসপাদারা। ডার্বির আগে বুধবারের হারটা অস্বস্তি বাড়িয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে অনুশীলনে প্রথম একাদশ রিকভারি সেশন সারে। বাকিদের নিয়ে ম্যাচ প্র্যাকটিস করান কোচ আলেসান্দ্রো মেনেন্ডেজ। অনুশীলনে সমর্থকদের দেখা নেই। অনুশীলন শেষে বাড়ি ফেরার পথে গাড়িতে ওঠার আগে মার্তি ক্রেসপির কাছে সংবাদমাধ্যমের প্রতিনিধিরা এগিয়ে গেলে, তিনি গাড়ির কাচ নামিয়ে বাড়ির পথে রওনা দেন।
ডার্বির আগে ভুলক্রটি শুধরে নিতে মরিয়া ইস্টবেঙ্গল। প্রথমত, ফিনিশিংয়ের অভাব। মাঝমাঠ এবং ফরোয়ার্ডদের মধ্যে বোঝাপড়ার অভাব। টিম ম্যানেজমেন্ট মনে করছে, চার্চিল ম্যাচে হারলেও দলের পারফরমেন্স গোকুলাম ম্যাচের মতো এত খারাপ হয়নি।
গত মরশুমের ডার্বিতে হাইমে কোলাডো ছিলেন লাল–হলুদের অন্যতম ভরসা। কিন্তু রবিবারের ম্যাচের আগে কোলাডোর অফ ফর্ম সবচেয়ে বেশি দুশ্চিন্তায় রেখেছে লাল–হলুদ সমর্থকদের। ভালবেসে সমর্থকরা কোলাডোর নাম দিয়েছিলেন ‘চকোলেট বয়’। সেই কোলাডো নিজেও উদ্বিগ্ন নিজের ফর্ম নিয়ে। গোকুলাম ম্যাচের পর কল্যাণীর সাজঘরে ফিরে কেঁদেছেন কোলাডো। কোচ আলেসান্দ্রোর সঙ্গে আলাদা করে আলোচনা করেছেন। রবিবারের ম্যাচ থেকেই ফর্মে ফিরতে মরিয়া তিনি।
প্র্যাকটিস শেষে দেখা গেল, নতুন ফুটবলার এডমন্ডের সঙ্গে আলাদা করে আলোচনা করছেন আলেসান্দ্রো। ডার্বিতে কি প্রথম একাদশে থাকবেন? না, সেই সম্ভাবনা ক্ষীণ। তবে ১৮ জনের স্কোয়াডে থাকতে পারেন। রিয়েল কাশ্মীরের প্রাক্তন ফুটবলার আভাস থাপার সঙ্গেও বেশ কিছুক্ষণ আলোচনা করেন ইস্টবেঙ্গল কোচ।
ডার্বির বাকি দু’দিন। আজ, শুক্রবার ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলন নেই। কোচ ছুটি দিয়েছেন। শনিবার সকালে সাইয়ের মাঠে ডার্বির চূড়ান্ত মহড়া সারবেন লালরিনডিকা রালতে, মার্তি ক্রেসপিরা। সাজঘরের খবর, বড় ম্যাচের আগে আলেসান্দ্রো আলাদা করে কথা বলবেন কোলাডোর সঙ্গে। শনিবার সকালে প্রথমে ভিডিও ক্লাস হবে। তার পর প্র্যাকটিসে নামবেন ইস্টবেঙ্গল ফুটবলাররা।

মাঠে কোলাডো। ছবি: অভিষেক চক্রবর্তী

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top