আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফুটবলার হিসেবে ক্লাবে থাকার সময় কোনওদিন তাঁকে বিক্রি করার সাহস দেখাননি কেউ। কিন্তু কোচ হিসেবে চেলসিতে বেশিদিন টিকতে পারলেন না ফ্র্যাঙ্ক ল্যাম্পার্ড। দেড় বছরের মাথাতেই বিদায় নিতে হল তাঁকে। সোমবার ল্যাম্পার্ডকে সরকারিভাবে বরখাস্ত করেছে চেলসি। রবিবার ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ডিভিশনের ক্লাব লুটন টাউনকে এফ এ কাপের চতুর্থ রাউন্ডের ম্যাচে ৩–১ হারায় চেলসি। তারপরেও ল্যাম্পার্ডকে বিদায় নিতে হল!‌ এই জয়ের ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই সরিয়ে দেওয়া হল ইংল্যান্ড ফুটবলের প্রাক্তন তারকাকে। চলতি মরসুমে লিভারপুল এবং ম্যাঞ্চেস্টার সিটির সঙ্গে ব্যবধান কমাতে প্রচুর অর্থ ঢেলেছিল চেলসি। নিয়ে আসা হয়েছিল দুই জার্মান তরুণ কাই হাভার্ৎজ, টিমো ওয়ার্নারকে। সে পরিকল্পনা কাজে লাগেনি। প্রিমিয়ার লিগে অবস্থা বেশ খারাপ চেলসির। ১৯ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে লিগ টেবিলের নয় নম্বরে। দল মালিক রোমান আব্রামোভিচ বলেছেন, ‘‌কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হল। ফ্র্যাঙ্কের সঙ্গে আমার সম্পর্ক খুবই ভাল।’‌ ২০০১ থেকে ২০১৪–মোট ১৪ বছর চেলসির হয়ে খেলেছেন ল্যাম্পার্ড। এরপর নিউ ইয়র্ক সিটিতে যান। সেখান থেকে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির হয়ে নেমে একসময় চেলসির বিরুদ্ধেও খেলেছেন। গোলও করেছেন। জানা গিয়েছে, নেইমারদের প্রাক্তন গুরু টমাস টুচেলকে কোচ করতে পারে চেলসি। কিছুদিন আগেই পিএসজি থেকে ছাঁটাই হয়েছেন টুচেল।
২০১৯ এর জুলাইয়ে চেলসির কোচ হয়ে আসেন ল্যাম্পার্ড। ইপিএলে চেলসি সেবার চার নম্বরে শেষ করেছিল। মরসুমের শুরুতে টানা ১৭ ম্যাচ অপরাজিত থাকলেও আচমকাই ছন্দপতন হয় চেলসির। গত ডিসেম্বরে পরপর হারতে হয়েছে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি, আর্সেনাল, এভার্টন, উলভস, লেস্টার সিটির কাছে। এরপরই কর্তাদের রোষের মুখে পড়েন ল্যাম্পার্ড। অবশেষে কোচ ল্যাম্পার্ডকে বরখাস্ত করা হল। কোচ ল্যাম্পার্ড ৪৪ ম্যাচ জিতেছেন। ড্র ১৫ ম্যাচে। আর হার ২৫ ম্যাচে। খুব খারাপ হয়ত নয়। তবুও বিদায় নিতে হল তাঁকে। 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top