দেবাশিস দত্ত- ৩০০ জন স্বেচ্ছাসেবককে নিয়ে ব্রিসবেনে গৃহহীনদের আশ্রয়ের ব্যবস্থা করার পাশাপাশি প্রতিদিন তাঁদের প্রাতরাশ করাচ্ছে গ্রেগ চ্যাপেল ফাউন্ডেশন। সঙ্গে আছেন ডেনিস লিলিও। ব্রেকফাস্ট মেনুতে স্যান্ডউইচ, মরশুমি ফল, ডিম, বিস্কুট, সুপ এবং চা। ব্রিসবেন থেকে গ্রেগ বললেন, ‘‌করোনার সময় তো বটেই, আমরা সারা বছরই শহরের গৃহহীন, গরিব মানুষদের ব্রেকফাস্টে আমন্ত্রণ জানাই। প্রতিদিন খাবার প্রয়োজন মানুষের। লাঞ্চ বা ডিনার করাতে পারি না অর্থের অভাবে। আমাদের এই সামাজিক কাজে যোগ দিতে নতুন নতুন সদস্য আসছে। দেখা যাক, ভবিষ্যতে আরও ভাল কোনও কাজ করতে পারি কিনা।’‌
ভোর হতেই স্বেচ্ছাসেবকরা বিশেষ একটি বাড়িতে জড়ো হয়ে ব্রেকফাস্ট প্যাকেট তৈরি করতে শুরু করেন। তারপর তা নিয়ে যাওয়া হয় ব্রিসবেনের ক্যাঙারু পয়েন্ট ও উইকহ্যাম পার্ক এলাকায়। সেখানেই ক্ষুধার্তরা ট্রাক থেকে প্যাকেট নিয়ে যান। গ্রেগের কথায়, ‘‌এখন প্রচণ্ড ঠান্ডা। আমরা মাঝেমধ্যে কম্বল ও পশমের পোশাক দিই। করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর অনেকে নিজেদের ডেরায় ফিরে খাবার পাচ্ছিল না। সকালে ব্রেকফাস্টের পর ওরা রাস্তায় ঘুরে খাবার সংগ্রহ করছে। কিন্তু আমরা নিরুপায়। অত টাকা নেই। তবে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জন হাওয়ার্ড এবং দুই প্রাক্তন গভর্নর স্যর পিটার কসগ্রোভ এবং কোয়েন্টিন ব্রাইস। তাই আমাদের কাজে গতি এসেছে।’‌ ৩ বছর ধরে এই সমাজসেবা করছেন গ্রেগ। করোনার সময় ব্যস্ততা বেড়েছে। এখনও পর্যন্ত ৪৪,০০০ মানুষের হাতে ব্রেকফাস্ট তুলে দিয়েছে তাঁর ফাউন্ডেশন।‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top