আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ময়দানের চিরাচরিত বারপুজো এবার খুব সম্ভবত হচ্ছে না। করোনা মোকাবিলায় গত মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত গোটা দেশে লকডাউন ঘোষণা করেছেন। তাঁর ঘোষণা করার পরেই ময়দান জুড়ে শুরু হয়ে গিয়েছে জোর আলোচনা। তাহলে কি এবার ময়দানের বহু প্রাচীন রীতি বারপুজো হবে না? এটা ঘটনা যে বারপুজো না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। তবে বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে দুই প্রধানের কর্তারা ব্যাপারটাকে খোলা মনে মেনে নিচ্ছেন।
ময়দানে বারপুজো পয়লা বৈশাখে হওয়াই রীতি। ময়দানের ইতিহাসে এই পুজো বরাবর ক্লাবগুলোর কাছে অত্যন্ত গুরুত্ব পায়। তাই এবারও ১৫ এপ্রিল বা পয়লা বৈশাখ এই পুজো হওয়ার কথা। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করে দিয়েছেন, ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত গোটা দেশে লকডাউন থাকবে। এই সময়ের মধ্যে কোনও মানুষ ঘর ছেড়ে বাইরে বেরোতে পারবেন না। পরিস্থিতি যদি বদলায় তাহলে ১৫ এপ্রিল লকডাউন উঠে যেতে পারে। কিন্তু কয়েক ঘণ্টার মধ্যে বারপুজো করা যে সম্ভব হবে না, তা ধরেই নেওয়া যায়। 
‘‌মানুষের মঙ্গলের জন্য বারপুজো করা হয়। প্রধানমন্ত্রী লকডাউনের কথা ঘোষণা করেছেন মানুষের মঙ্গলের জন্য।  যদি শেষমেশ বারপুজো না হয় তাহলে আর কী করা যাবে।’‌ বলেন মোহনবাগান সচিব সৃঞ্জয় বোস। ইস্টবেঙ্গলের অন্যতম কর্তা দেবব্রত সরকারের গলাতেও একই সুর। তিনি বলে দেন, ‘‌মানছি, করোনা নামক ভাইরাস ডিফেন্ডারের কাছে হয়তো আটকে যাবে বারপুজো। একটা কথা মানতেই হবে, সবকিছুর উর্ধ্বে মানুষের জীবন। সুতরাং মারণ ভাইরাসের জন্য ঐতিহ্যের সঙ্গে সমঝোতা করতেই হবে।’‌ 

‌‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top