আজকালের প্রতিবেদন,ভুবনেশ্বর: সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে মেহতাব হোসেনের সামনের মরশুমে ইস্টবেঙ্গলে ফেরা হচ্ছে না। তিনি নিজেই জানিয়েছিলেন, লাল–হলুদে সামনের মরশুমে সই করার ইচ্ছা রয়েছে। কিন্তু, জামশেদপুর সূত্রে যা খবর, পরের মরশুমেও মেহতাবকে ধরে রাখতে চায় তারা। তবে, সরকারি চুক্তি এখনও হয়নি। আই লিগ নয়, সমর্থকদের আবেগ নয়, তারকা বঙ্গসন্তান মিডিও ঝুঁকে রয়েছেন আইএসএলের দিকেই। মাঝে কলকাতায় ফিরে লাল–হলুদের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকারের সঙ্গে আলোচনাতেও বসেছিলেন মেহতাব। তবে, চূড়ান্ত না হলেও জামশেদপুরের সঙ্গে কথাবার্তা অনেকটাই এগিয়েছে তঁার।
অন্যদিকে, লাল–হলুদের আরেক ঘরের ছেলে অর্ণব মণ্ডলের সঙ্গে সামনের মরশুমে সম্পর্ক ছিন্ন হতে চলেছে ইস্টবেঙ্গলের, তা কমবেশি সবাই জেনে গেছে। আগ্রহ ছিল, বঙ্গসন্তান ডিফেন্ডার কোন দলে সই করেন। সূত্রের খবর, এখনও পর্যন্ত যা ছবি, এটিকে–র দিকেই পাল্লা ভারী অর্ণবের। কথাবার্তা অনেকটাই এগিয়েছে। কলকাতা টিমে আগেও খেলেছেন তিনি। কর্তাদের পছন্দের তালিকায় ওপরের দিকেই নাম অর্ণবের। তবে, এরই মধ্যেই বাগানের প্রস্তাবও এসেছিল। 
দলবদলের বাজারে আশ্চর্যের খবর, বিশ্বকাপারদের দল ভেঙে যেতে চলেছে সামনের মরশুমে। অনূর্ধ্ব–১৭ বিশ্বকাপে খেলা রহিম আলি, অভিজিৎ সরকারদের নিয়ে তৈরি ইন্ডিয়ান অ্যারোজের অনেক ফুটবলারই সামনের মরশুমে এদিক–ওদিক ছিটকে যাচ্ছে। ফেডারেশনের তরফে অ্যারোজ ফুটবলারদের বলে দেওয়া হয়েছে, সামনের মরশুমে ভাল প্রস্তাব পেলে, তা গ্রহণ করতেই পারো। তা শোনার পর হাত গুটিয়ে বসে নেই অ্যারোজের ফুটবলাররা।
জ্যাকসন সিংকে মনে রয়েছে? গত অক্টোবরে দিল্লিতে যুব বিশ্বকাপে ভারতের হয়ে একমাত্র গোলদাতা। সেই জ্যাকসন সিংকে সামনের মরশুমে খেলতে দেখা যেতে পারে মিনার্ভা এফসি–‌তে। শুধু জ্যাকসন নন, নংদাম্বা নাওরেম,  আনোয়ার আলি, অমরজিৎ সিংরাও মিনার্ভা টিমে হয়তো সই করবেন। এ দিন ফোনে মিনার্ভার মালিক রঞ্জিত বাজাজ বলেন, ‘ওদের কাছে আইএসএলের ক্লাবেরও প্রস্তাব আছে। ওরা যদি আইএসএলকে বেটার অপশন মনে করে, আইএসএলে যেতে পারে। নয়তো ওদের জন্য মিনার্ভার দরজা সবসময় খোলা।’ অ্যারোজের সঞ্জীব স্ট্যালিনের কাছে আই লিগ দ্বিতীয় ডিভিশনের টিম ওজোন এফসি–র প্রস্তাব রয়েছে। 
এদিকে, মিনার্ভাকে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন করিয়েও মিনার্ভার কোচের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল খোগেন সিংকে। তঁার এএফসি প্রো–‌লাইসেন্স নেই। এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ বাছাই পর্বে অংশগ্রহণ করবে মিনার্ভা। তাতে কোচের প্রো–লাইসেন্স থাকা বাধ্যতামূলক। খোগেনের জায়গায় বিদেশি কোচের খোঁজ করছেন রঞ্জিত। খোগেনকে মিনার্ভার সহকারী কোচ বা অ্যাকাডেমির দায়িত্বে রেখে দেবেন রঞ্জিত। ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তনী উইলিস প্লাজাকে সামনের মরশুমে দেখা যাবে জামশেদপুর এফসি–‌তে।‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top