আজকাল ওয়েবডেস্ক: সুরেশ রায়নার আত্মীয়দের ওপর হামলা করার অভিযোগে‌ গ্রেপ্তার হল তিন। পাঞ্জাব সরকার জানাল, মামলার সমাধান হয়ে গিয়েছে। 
পাঠানকোটের থারিয়াল গ্রামের বাসিন্দা রায়নার ওই আত্মীয়রা। ২০ আগস্ট রাতে হঠাৎই তাঁদের বাড়িতে ঢুকে পড়ে অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীদের একটি দল। সেই সময় বাড়ির ছাদে ঘুমোচ্ছিলেন পিসি–পিসেমশাই ও তাঁদের সন্তানরা। তখনই ধারাল অস্ত্র দিয়ে তাঁদের উপর আক্রমণ করে দুষ্কৃতীরা। সেই হামলাতেই প্রাণ হারান বছর চুয়ান্নর পিসেমশাই অশোক কুমার। গুরুতর আঘাত পান রায়নার পিসি আশাদেবী। হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন তিনি। এক ভাই হামলায় বেঁচে গেলেও হাসপাতালে মারা যায় অপর ভাই। 
পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিংকে অনুরোধ করে একটি টুইট করেছিলেন রায়না। ‘‌এই ঘটনা যারা ঘটিয়েছে, তাদের খুঁজে বের করুন। দুষ্কৃতিরা যেন রেহাই না পায়।’‌ 
বুধবার গ্রেপ্তারির পর ডিজিপির মাধ্যমে জানা গিয়েছে, এই দলটি আন্তঃরাজ্য ডাকাতি ও দুষ্কৃতিদের একটি বড় চেইনের অংশ। এই তিনজন ছাড়াও দলে ১১ জন রয়েছে। তাদের গ্রেপ্তার করার জন্য এখন জোর তল্লাশি চলছে। এই তিনজনকে পাঠানকোট রেলওয়ে স্টেশনের কাছের একটি বস্তি থেকে ধরা হয়েছে। সকলেই রাজস্থানের বাসিন্দা। এরা জম্মু কাশ্মীর, পাঞ্জাব ও উত্তরপ্রদেশেও এরকম হামলা চালিয়েছে। সুরেশ রায়নার পিসির বাড়ি থেকে সোনার গয়না ও টাকা চুরি করেছিল তারা। 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top