আজকাল ওয়েবডেস্ক: মিম স্রষ্টাদের খরার সময়ে চলছিল। হাতে কোনও কিম্ভুত ঘটনা নেই। কিন্তু খরা কাটিয়ে বাজারে এল ‘‌বিনোদ’। কে এই বিনোদ?‌ ট্রেন্ডিংই বা হল কেন এই ‘‌বিনোদ’‌?‌
সোশ্যাল মিডিয়ায় যেকোনও পোস্টে গিয়ে আপনি কমেন্ট সেকশনে যান। একজন থেকে দু’‌জনকে আপনি পাবেনই যিনি কমেন্ট করেছেন ‘‌বিনোদ’‌। ব্যস এতটুকুই। অনেক নেটিজেনই ভাবনাচিন্তা শুরু করেছেন, ‘‌কী হচ্ছে কেসটা?‌’‌ বন্ধুদের জিজ্ঞাসাও চলছে, ‘‌বিনোদের কেসটা কী হচ্ছে জানিস?‌’‌ 
শুরুটা হয়েছে দুই ইউটিউবারের মাধ্যমে। গৌতমী ও অভ্যুদয়। তাঁদের ইউটিউব চ্যানেল ‘‌স্লে পয়েন্ট’ থেকে একটি ভিডিও করা হয়।‌ ভিডিওর মূল বিষয় ছিল, ভারতীয়রা বিভিন্ন ভিডিওর তলায় গিয়ে অপ্রাসঙ্গিক কমেন্ট কেন করে। সেই বিষয়ে বলতে গিয়ে তাঁরা একটি উদাহরণ দেন। বিনোদ থারু বলে এক টুইটার ব্যবহারকারী কোনও এক ভিডিওর তলায় কমেন্ট করেছিলেন, ‘‌বিনোদ’। কেন, কী বৃত্তান্ত কিচ্ছু বোঝা যায়নি। ‌গৌতমী ও অভ্যুদয়ের এই ভিডিওর নামটি হল ‘‌হোয়াই ইন্ডিয়ান কমেন্টস্‌ সেকশন ইজ গারবেজ (‌বিনোদ)‌’। ভিডিওটি ভাইরাল হতেই নেটিজেনরা মজা পেয়ে যান। এবারে চলতে থাকে সময় কাটানো। কীভাবে?‌ সোশ্যাল মিডিয়ায় যেকোনও ভিডিও বা পোস্টের তলায় গিয়ে লোকজন কমেন্ট করে আসছেন, ‘‌বিনোদ’‌।‌ এরই মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া কাঁপিয়ে সেরা ঘটনাটি ঘটিয়ে ফেলল পেটিএম সংস্থা। নিজেদের টুইটার হ্যান্ডেলের নাম বদলে রাখল ‘‌বিনোদ’‌। এই ঘটনার সূত্রপাতে আসা যাক। এক টুইটার ব্যবহারকারী মজা করেই পেটিএম–কে ট্যাগ করে লিখেছিলে।, ‘‌দেখি তো তোমরা নিজেদের নাম বদলে ‘‌বিনোদ’‌ রাখতে পারো কিনা। তোমাদের দৌড় দেখি।’ ব্যস, ছিল পেটিএম, হয়ে গেল ‘‌বিনোদ’।‌
 

জনপ্রিয়

Back To Top