আজকাল ওয়েবডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যুরহস্যে মাদক–যোগ মামলায় নিজেদের সাফাইয়ে মুখ খুলল হোয়াটস্‌অ্যাপ। বৃহস্পতিবার সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম দাবি করেছে, তাদের সব কটি হোয়াটস্‌অ্যাপ মেসেজ সুরক্ষিত থাকে এবং কোনও তৃতীয়পক্ষের সেটা পড়া অসম্ভব। সুশান্ত মামলায় মাদক–যোগ তদন্তের সময় তাঁর ট্যালেন্ট ম্যানেজার জয়া সাহার ২০১৭ সালের হোয়াটস্‌অ্যাপের মেসেজ পড়েই তদন্তের আরেকটি দিক খুঁজে পায় এনসিবি। এরপরই দীপিকা পাড়ুকোন এবং শ্রদ্ধা কাপুরকে তলব করে এনসিবি। তারপরই হোয়াটস্‌অ্যাপের মেসেজের গোপনীয়তা রক্ষা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। হোয়াটস্‌অ্যাপের মুখপাত্র বলেছেন, একমাত্র যে ব্যক্তি যাঁর সঙ্গে চ্যাট করছেন, শুধু তাঁরাই সেই মেসেজ পড়তে পারবেন। এমনকি হোয়াটস্‌অ্যাপ নিজেও সেই মেসেজ দেখতে পারে না। কারণ এটা ফোন নম্বরের মাধ্যমে যোগাযোগ করা হয়। এতে অন–ডিভাইস স্টোরেজ সিস্টেম আছে এবং সব ধরনের গোপনীয়তা রক্ষার বন্দোবস্ত আছে। যদিও অনেকের বিশ্বাস, ২০০৫ সাল থেকেই মোবাইল ফোন ক্লোনিং–এর যে পদ্ধতি আছে তার মাধ্যমে মেসেজ অন্য কেউ পড়তে পারে। কারণ একটি ক্লোন্‌ড ফোন হোয়াটস্‌অ্যাপের পুরনো চ্যাট প্রকাশ্যে আনতে পারবে যেগুলি এনক্রিপ্টেড করা নেই।

জনপ্রিয়

Back To Top