আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের হাহুতাশ যে আসলে কুম্ভীরাশ্রু তা আবার প্রমাণিত হল। রবিবার সকাল থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটা ছবি দেখে স্তব্ধ হয়ে গেল সারা দেশ। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, মধ্য প্রদেশের শিবপুরী জেলায় রাস্তার ধারে বন্ধুর কোলে বেঁহুশ হয়ে নেতিয়ে পড়ে আছেন এক যুবক। এবং তাঁর বন্ধু, আরেক যুবক অসহায়ভাবে সাহায্য চাইছেন। তবে বন্ধুর চেষ্টা বিফল করে কয়েক ঘণ্টা পরেই মারা যান অমৃত নামে ২৪ বছরের ওই যুবক। 
পুলিশ সূত্রে খবর, গুজরাটের সুরাটের একটি কাপড় কারখানার কর্মী অমৃত এবং ইয়াকুব উত্তর প্রদেশের বস্তি জেলার বাসিন্দা। লকডাউনে কাজ খোয়ানোর পর বাড়ি ফেরার উদ্দেশ্যে ৪০০০ টাকা দিয়ে একটি ট্রাকে দাঁড়ানোর জায়গা পেয়েছিলেন দুজনে। কিন্তু মাঝপথে অমৃত অসুস্থ হয়ে পড়ায় শিবপুরীর কাছে তাঁকে ট্রাক থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়। বন্ধুর সঙ্গে নেমে পড়েন ইয়াকুবও। অসুস্থ অমৃত বন্ধুর কোলেই ঢলে পড়েন। অসহায় ইয়াকুব সাহায্যের আর্তি জানালেও পথচলতি কেউ কর্ণপাত করেননি। এক স্থানীয় বাসিন্দা ছবি তুলে সেটা সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করেন। পরে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে অমৃতকে শিবপুরী জেলা হাসপাতালে ভর্তি করলেও সেখানেই তিনি মারা যান। হাসপাতালের চিকিৎসক পিকে খারে জানান, অমৃতের অত্যন্ত জ্বর ছিল এবং তিনি বমি করছিলেন। গরমেই  এই মৃত্যু বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হলেও অমৃতের দেহের কোভিড–১৯ পরীক্ষা করা হয়েছে। পরীক্ষার রিপোর্ট আসলেই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে বলে জানালেন খারে। ইয়াকুবকে কোয়ারানটাইন করে তাঁরও পরীক্ষা করা হয়েছে। সেই রিপোর্টও এখনও আসেনি।   

জনপ্রিয়

Back To Top