আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ইসরো প্রধান কে শিবান বুধবার ঘোষণা করলেন মিশন চন্দ্রযান–৩ নিয়ে কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। আর তা চলছে পুরোদমে। ২০২০ সালের মধ্যে তৈরি হয়ে যাবে চন্দ্রযান–৩। তবে ভারতের আর একটু সময় লাগবে চাঁদে মহাকাশচারী পাঠাতে। ফলে আরও একবার মহাকাশে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে চলেছে বলে মনে করছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। 
এদিন তিনি আরও জানান, মিশন গগনযানের জন্য চারজন মহাকাশচারীর নাম চূড়ান্ত করা হয়েছে। সামনের দিনেই তাঁরা রাশিয়া যাবেন প্রশিক্ষণের জন্য। আর গগনযান মিশন হবে ভারতের কাছে ঐতিহাসিক প্রাপ্তি। কারণ আরও উন্নত করা হচ্ছে প্রযুক্তি। রাশিয়া থেকে তাঁরা প্রশিক্ষণ নিয়ে আসার পর ভারতেও একটা প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। 
এই গগনযান মিশন শুধু মানুষকে মহাকাশে পাঠানো নয়, এই মিশনের মাধ্যমে জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক স্তরে অনেক সুযোগ সুবিধা তৈরি হবে। যা যৌথ উদ্যোগে করা যাবে। সংবাদসংস্থা এএনআই–কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ইসরো প্রধান বলেন, ‘‌আমরা সবাই জানি বৈজ্ঞানিক আবিষ্কার, আর্খিক উন্নতি, শিক্ষা, প্রযুক্তি উন্নয়ন এবং যুব সম্প্রদায়কে অনুপ্রাণিত করে জাতির উন্নয়নে। মহাকাশে মানুষ পাঠাতে গেলে এইসব বিষয়ের ওপর নজর রাখতে হবে।’‌ 

জনপ্রিয়

Back To Top