আজকাল ওয়েবডেস্ক: মঙ্গল অভিযানে নাম লেখাল সংযুক্ত আরবআমিরশাহি। সোমবার স্থানীয় সময় ভোররাত ১.‌৫৮ মিনিটে জাপানের তানেগাশিমা মহাকাশ কেন্দ্র থেকে লাল গ্রহের উদ্দেশ্যে পাড়ি দেয় তাদের প্রথম মহাকাশ যান ‘‌হোপ মার্স মিশন’‌। আর এভাবেই আরব দেশগুলির মধ্যে প্রথম দেশ হিসেবে ভিনগ্রহ অভিযান শুরু করল সংযুক্ত আরবআমিরশাহি বা ইউএই। রবিবার উৎক্ষেপণের কথা থাকলেও খারাপ আবহাওয়ার জন্য তা মিছিয়ে সোমবার হয়। পরে ইউএই মহাকাশ সংগঠনের টুইটার অ্যাকাউন্টে সেকথা জানানো হয়েছে। সংগঠনের ডিরেক্টর মহম্মদ বিন রশিদ বলেন, ‘‌এই অভিযান ইউএই এবং লাগোয়া অঞ্চলের জন্য একটা মাইলস্টোন। এটা কয়েক লক্ষ যুবকযুবতীদের মনে নতুন আশা জাগিয়েছে এবং উদ্বুদ্ধ করেছে।’‌ হোপের সফল উৎক্ষেপণের খবরে বিশ্বের সর্বোচ্চ বহুতল বুর্জ খলিফা আলোকিত করে দেওয়া হয় ১০ সেকেন্ডের জন্য।
সোমবার থেকে আগামী ২০০ দিন বাদে, ৪৯৩ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে প্রায় সাত মাস বাদে মঙ্গলের কক্ষপথে ঢুকবে হোপ। সব কিছু সফলভাবে চললে, ২০২১ সালে মঙ্গলের কক্ষপথে ঢোকার কথা হোপের। ওই বছরই হবে সাতটি দেশ নিয়ে গড়ে ওঠা ইউএই–র ৫০তম বার্ষিকী। মঙ্গলের আবহাওয়া মণ্ডল নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চালাবে মহাকাশ যানটি। মঙ্গলের একবছর, অর্থাৎ ৬৮৭ দিন তাকে প্রদক্ষিণ করবে। যাতে মঙ্গলের আবহাওয়া মণ্ডলের প্রকৃত ছবি পাওয়া যায়। আবহাওয়ার দৈনিক এবং মরশুমি বদল, বিশাল ধুলোর ঝড়, কেন আবহাওয়া মণ্ডলের উপররের স্তর বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে গ্রহ থেকে সেসব নিয়ে গবেষণা চালাবে হোপ। আর তাহলে মঙ্গলের আগের দিকের এবং এখনকার পরিবর্তনটা স্পষ্ট হবে বলেই মনে করছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। ২০১৪ সালে ইউএই–র প্রেসিডেন্ট, শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান এবং শেখ মহম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম মঙ্গল মিশনের কথা ঘোষণা করেছিলেন। 
ছবি:‌ এএনআই‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top