আজকালের প্রতিবেদন: বিভিন্ন বিজ্ঞান প্রকল্প নিয়ে ‘‌ফেয়ার (‌ফেসিলিটি ফর অ্যান্টি প্রোটন অ্যান্ড আইওএন রিসার্চ)‌ উইক’‌ শুরু হল সায়েন্স সিটির বিজ্ঞান সমাগমে। ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত এই ‘‌উইক’‌ চলবে। বলবেন বিশ্বের বিভিন্ন বড় বিজ্ঞান প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত বৈজ্ঞানিকেরা। মঙ্গলবার বোস ইনস্টিটিউটের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এর সূচনা হয়। বক্তব্য পেশ করেন ইনস্টিটিউটের প্রাক্তন ডিরেক্টর অধ্যাপক শিবাজী রাহা। তিনি এখন জয়েন্ট সায়েন্টিফিক কাউন্সিল অফ জিএসআই অ্যান্ড ফেয়ার–এর চেয়ারম্যান। বোস ইনস্টিটিউটের গবেষক শ্রেয়া রায় ভাষণ দেন। প্রতিদিনই বিভিন্ন বক্তা ছাত্রছাত্রী ও গবেষকদের সামনে বিভিন্ন প্রকল্পের বিষয়ে বলবেন। আজ, বুধবারের বক্তা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগের প্রধান অভিজিৎ ভট্টাচার্য। শেষ দিনে বলবেন বোস ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড.‌ রাজর্ষি রায়। সার্ন গবেষণা নিয়েও বক্তব্য পেশ করবেন বিশিষ্ট বিজ্ঞানীরা। সায়েন্স সিটিতে বিজ্ঞান সমাগম দেখতে ভিড় হচ্ছে ভালই। আসছেন বহু কলেজপড়ুয়াও।
অন্য দিকে, বিজ্ঞান সমাগমে চলছে বিভিন্ন প্রকল্পের প্রদর্শনী। হিগ্‌স–বোসনের গবেষণা কী ভাবে হয়েছে?‌ যে–‌যন্ত্রে ধরা পড়েছিল ‘বোসন’ কণার অস্তিত্ব, সেই লার্জ হ্যাড্রন কোলাইডার যন্ত্রটি দেখতে কী রকম?‌ কী ভাবে ওই গবেষণা হয়েছে‌ তা বোঝাতে সেই ‘লার্জ হ্যাড্রন কোলাইডার’–এর মডেল আনা হয়েছে প্রদর্শনীতে। চলবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। প্রদর্শনীতে দেখানো হচ্ছে বিশ্বে সাড়া–‌জাগানো আন্তর্জাতিক কয়েকটি প্রকল্প। যার সব ক’টিতেই ভারতের প্রতিনিধিত্ব রয়েছে। রয়েছে ‘লেসার ইন্টারফেরোমিটার গ্র্যাভিটেশনাল ওয়েভ অবজারভেটরি’ (লাইগো)। মহাকর্ষীয় তরঙ্গের সূত্র ধরে ব্ল্যাক হোল–‌সংক্রান্ত ওই গবেষণা–‌প্রকল্পও সাড়া ফেলেছে। মহাকাশ গবেষণার জন্য যে ‘থার্টি মিটার টেলিস্কোপ’ তৈরি হচ্ছে, তার মডেলও রয়েছে প্রদর্শনীতে। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top