আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পাবজি নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকেই বেজায় মন খারাপ অনলাইন ব্যাটেল গেমের প্লেয়ারদের। আট থেকে আশি মনমরা সকলেই। ভারতের লোভনীয় বাজার হাতছাড়া করতে রাজি নয় দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্থাও। ফলে নতুন উপায়ে ভারতের বাজারে ফেরার চেষ্টা করছে পাবজি কর্পোরেশন। সূত্রের খবর, দেশীয় কোনও সংস্থার হাত ধরেই ভারতের বাজারে ফিরতে পারে এই অনলাইন গেম। এজন্য অংশীদার হিসেবে ভারতীয় সংস্থার খোঁজ শুরু করেছে তারা বলেও খবর প্রকাশিত হয়েছে এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে।
চীনা সংস্থা টেনসেন্টের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধায় পাবজি মোবাইল গেম নিষিদ্ধ হয়েছে দেশে। গ্রাহকদের সুরক্ষার বিষয় জানতে চেয়ে ৭০ টি প্রশ্ন পাঠানো হয়েছে সংশ্লিষ্ট সংস্থার কাছে। তার যথাযথ জবাব দিতে পারলে তবেই ভারতীয় বাজারে ফের ফিরতে পারে অনলাইন ব্যাটেল গেম। এদিকে ভারতে নিষিদ্ধ হওয়ার পরেই চীনা সংস্থার হাত থেকে পাবলিশিংয়ের স্বত্ত্ব ফিরিয়ে নিতে চাইছে পাবজি কর্পোরেশন। আর সেই স্বত্ত্ব ভারতীয় কোনও সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হতে পারে বলে খবর।
চিনা সংস্থাকে এড়িয়ে আলাদাভাবে লাইসেন্স পেতে পাবজি আবেদন জানাবে ভারত সরকারের তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের কাছে। যেহেতু দক্ষিণ কোরিয়া ভারতের বন্ধু দেশ এবং চীনের সঙ্গেও তাদের রাজনৈতিক শত্রুতা রয়েছে তাই সংস্থাটি মনে করছে পাবজি গেমের বিপণনের জন্য নতুন করে লাইসেন্স পেতে আবেদন জানালে তা ফিরিয়ে দেবে না ভারত সরকার। 
১১৮টি চীনা অ্যাপের সঙ্গে পাবজিকেও নিষিদ্ধ করেছিল ভারত সরকার। তাতে পাবজি গেমের ফ্রাঞ্চাইজি চীনের টেনসেন্ট গেম সংস্থার আর্থিক ক্ষতি হয়েছিল সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা। ভারতের মতো বিপুল, লোভনীয় বাজার হাতছাড়া হওয়ায় দুশ্চিন্তায় রাতের ঘুম উড়েছে পাবজি কর্পোরেশন এবং ক্রাফটনের। অনলাইন ব্যাটল গেম পাবজি’র মার্কেটিংয়ের দায়িত্বে থাকা চীনা সংস্থা টেনসেন্টের বিপুল আর্থিক ক্ষতির জেরে ক্ষতিগ্রস্ত কোরীয় ও মার্কিন সংস্থাগুলিও। সেই ক্ষতি সামাল দিতেই এবার ঘুরপথে হাঁটছে পাবজি কর্পোরেশন।


 

জনপ্রিয়

Back To Top