‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নেট দুনিয়া থেকে ধর্ষণের ভিডিও, শিশু যৌনতা, এবং অন্যান্য আপত্তিজনক অশ্লীল বিষয় সাফ করার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। বিচারপতি মদন বি লোকুর এবং ইউইউ ললিতের জাস্টিস বেঞ্চ একটি মামলার শুনানিতে জানান, গুগল, মাইক্রোসফট, ফেসবুকের মতো সমস্ত বড় ওয়েব সংস্থার সাহায্যে এই কাজ করতে হবে কেন্দ্রকে। এমনকী বেঞ্চের তরফে বলা হয়েছে, ‘‌কেন্দ্র ২৮ নভেম্বর পর্ন বন্ধ করা নিয়ে যে নির্দেশ দিয়েছে তা নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া মিলেছে। গুগলের একরকম প্রতিক্রিয়া, তো ইউটিউবের আর একরকম। ফেসবুক বা মাইক্রোসফট আবার অন্যরকম কিছু বলছে। সেই কারণেই এই নির্দেশ বলবৎ করা কঠিন হচ্ছে।’‌ তাই প্রত্যেক সংস্থাকে এই বিষয়ে কী করা যেতে পারে তা নিয়ে তাদের প্রস্তাব জমা দিতে বলা হয়েছে।
বেঞ্চ জানিয়েছ, প্রতিক্রিয়া আলাদা হলেও শিশু পর্ন এবং গণধর্ষণের মতো খারাপ ভিডিওগুলি যে বন্ধ হওয়া উচিত, তা নিয়ে কোনও দ্বিমত নেই কারও। তাই সকলের প্রস্তাব বিবেচনা করে নির্দিষ্টি পদ্ধতিতে এই কাজ শুরু করা যেতেই পারে। ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে এই কাজের রূপরেখা তৈরি করে সুপ্রিম কোর্টে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই মামলার শুনানিতে হোয়াটসঅ্যাপ সংস্থার তরফে নিযুক্ত আইনজীবী কপিল সিব্বাল জানান, যেহেতু হোয়াটসঅ্যাপে এন্ড টু এন্ড ডেটা এনক্রিপটেড থাকে, অর্থাৎ দু’‌টো মানুষের মধ্যে বিনিময় হওয়া ডেটায় তৃতীয় কারও প্রবেশাধিকার থাকে না তাই সেখানে আপত্তিজনক কিছু আপলোড হলেও সংস্থার তরফে ডিলিট করা যাবে না। এটা নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্তে আসা যায়নি।
নভেম্বর মাসেই কেন্দ্র সুপ্রিম কোর্টের কাছে জানায়, ওয়েব দুনিয়ায় আপত্তিজনক বিষয় ছড়িয়ে পড়া রুখতে ২৪ ঘন্টার জন্য সতর্কতা ব্যবস্থা নিতে হবে। প্রয়োজনে আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে। এই মামলা চলছে ২০১৫ থেকে। সেই মামলার তথ্যপ্রমাণ হিসেবে বিচারপতি এইচএল দাত্তুর কাছে একটি পেনড্রাইভ জমা করেছিল হায়দরাবাদের একটি স্বেচ্ছাসেবি সংস্থা। ওই পেনড্রাইভের মধ্যে থাকা দু’টি ধর্ষণের ভিডিও এই মামলাকে নতুন করে ভাবতে বাধ্য করে। অভিযুক্তকে ধরতে শুরু হয় সিবিআই তদন্তও।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top