আজকাল ওয়েবডেস্ক: আপনি কি মহাকাশপ্রেমী। তাহলে নিশ্চয়ই এতদিনে সি/‌২০২০ এফ৩ নিওওয়াইজ বা নিওওয়াইজ ধুমকেতু সম্পর্কে জেনে গিয়েছেন। আর যদি নাও জানেন তাহলে জেনে নিন, এই ধুমকেতুটি এমাসের তিন তারিখ থেকে পৃথিবীর উত্তর গোলার্ধের আকাশে সূর্যোদয়ের আগে বা সূর্যাস্তের পর দেখা যাচ্ছে। ওই দিনই সূর্যের সব থেকে কাছে এসেছিল নিওওয়াইজ। জুলাইয়ের মাঝামাঝি থেকে সূর্যাস্তের পর উত্তরপশ্চিম আকাশে, বিগ ডিপার নক্ষত্র মন্ডলীর কাছে খালি চোখে বা সাধারণ বাইনোকুলার দিয়েই দেখা যাচ্ছে নিওওয়াইজ ধুমকেতু। এত উজ্জ্বল ধুমকেতু এর আগে ১৯৯৫–৯৬ সালে হেল–বপ ধুমকেতু ছাড়া আর কিছুকেই দেখা যায়নি।
আর সব থেকে উৎসাহব্যঞ্জক কী জানেন। ২২ তারিখ, অর্থাৎ বুধবার সূর্যাস্তের পর সব থেকে উজ্জ্বল দেখাবে নিওওয়াইজকে। কারণ ওই দিনই পৃথিবীর সব থেকে কাছাকাছি আসবে ধুমকেতু। তবে এতে আশঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। কারণ মহাজাগতিক ভাষায় কাছাকাছি–র অর্থ ভিন্ন। ওই দিন নিওওয়াইজ আসলে পৃথিবীর থেকে ১০৩ মিলিয়ন কিলোমিটার দূরে থাকবে। তাই কোনওরকম সংঘর্ষ হওয়ার সম্ভাবনা নেই।
নিওওয়াইজের নিউক্লিয়াসের ব্যাস পাঁচ কিলোমিটার এবং ধুলো এবং আয়ন সম্বলিত লেজ কয়েক মিলিয়ন কিলোমিটার লম্বা, যা সূর্যের দিকে মুখ করা। এবছরের ২৭ মার্চ, নাসার নিয়ার–আর্থ অবজেক্ট ওয়াইডফিল্ড ইনফ্রারেড সার্ভে এক্সপ্লোরার বা নিওওয়াইজ মহাকাশযান এই ধুমকেতুকে প্রথম দেখতে পায় যখন সেটি সূর্যের দিকে যাচ্ছিল। উপগ্রহ চিত্র অনুযায়ী, নিওওয়াইজের একটি ধুলোর লেজ এবং সম্ভবত দুটি আয়োনাইজড লেজ আছে। ধুমকেতু এবং তার ধুলোর লেজ থেকে নির্গত গ্যাসে প্রতিফলিত সূর্যালোক থেকেই এত উজ্জ্বল দেখায় নিওওয়াইজকে। 
তবে আর তত্ত্বের কচকচি না পড়ে আজ থেকেই সূর্যাস্তের পর আকাশে চোখ রাখুন। এবার না দেখলে আর বোধহয় আমাদের দেখার সম্ভাবনা নেই। কারণ ফের ৬৮০০ বছর পর আসবে নিওয়াইজ   
ছবি:‌ নাসা

জনপ্রিয়

Back To Top