আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সাইবেরিয়ার তপষারাবৃত মাটির তলায় যে আর কত রহস্য লুকনো আছে তা নিয়ে বোধহয় এবার বিজ্ঞানীদের মধ্যে বিতর্কসভা বসতে পারে। সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা সেখান থেকে খুঁজে পেয়েছেন ৪৬০০০ বছরের এক মৃত হর্নড লার্ক পাখির মৃতদেহ। তুষারের স্তুপের তলায় চাপা পড়ে থাকায় এত বছরেও পাখির শরীরে তেমন পছন তো ধরেইনি, উল্টে এমনভাবে সংরক্ষিত রয়েছে যে মৃতদেহ থেকে পাখিটির জিনগত তত্ত্বও উদ্ধার করতে পেরেছেন প্রাণীবিজ্ঞানীরা। তা থেকেই জানা যাচ্ছে, সাইবেরিয়ার তুন্দ্রা এবং মোঙ্গোলিয়ার স্টেপ তৃণভূমিতে আজকের যুগে বিচরণ করা হন্ড লার্ক পাখির সংমিশ্রিত পূর্বপুরুষ এই হর্নড লার্কের মৃতদেহ।

বললেন, সুইডেনের স্টকহোম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিজ্ঞান শাখার গবেষক নিকোলাস ডাসেক্স।
কমিউনিকেশনস্‌ বায়োলজিতে প্রকাশিত সাম্প্রতিক রিপোর্টে হন্ড লার্কের মৃতদেহের কথা উল্লেখ করে বিজ্ঞানীরা লিখেছেন, শেষ তুষার যুগের সময় ইওরোপ এবং এশিয়ার উত্তরাংশে বিস্তৃত এই তৃণভূমিতে একসময় দাপিয়ে বেড়াত লোমশ ম্যামথ এবং লোমশ গন্ডার। গবেষকদের মতে, সাইবেরিয়ার এই অঞ্চল আসলে স্টেপ, তুন্দ্রা এবং সরলবর্গীয় বনের সংমিশ্রন ছিল। শেষ তুষার যুগের সমাপ্তিকালে অঞ্চলটি তিনভাগে ভাগ হয়ে যায়— উত্তরে তুন্দ্রা, মধ্যাংশে টাইগা এবং দক্ষিণে স্টেপ তৃণভূমিতে। এই পাখির মৃতদেহ থেকেই তাঁরা বুঝতে পারবেন কীভাবে হর্নড লার্কের বিবর্তন হয়েছে, মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।        

জনপ্রিয়

Back To Top