আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বিতর্ক যেন কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা ফেসবুকের। কয়েকদিন আগেই জানা গিয়েছিল, কয়েক লক্ষ ফেসবুক অ্যাকাউন্ট চলে গিয়েছে হ্যাকারদের কবলে। ফেসবুক সে খবরের সত্যতাও স্বীকার করে নিয়েছিল। আর এবার সামনে এল আরও ভয়ানক খবর। একটি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, প্রায় ৮১ হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য বিক্রি করছে হ্যাকাররা। এমনকি অপর একটি সংবাদমাধ্যমে হ্যাকাররা দাবি করেছে, এরকম প্রায় ১২ কোটি ব্যবহারকারীর তথ্য তাদের কাছে রয়েছে। সাইবার সুরক্ষা সংস্থা ‘‌ডিজিটাল স্যাডোস’‌ গোটা ঘটনাটির তদন্তে নামে। তাঁরা জানায়, হ্যাকাররা টাকার বিনিময়ে ৮১,০০০ হাজার ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য এবং অ্যাকাউন্ট বিক্রি করছে। এরপর বিবিসি রাশিয়ান সার্ভিসের পক্ষ থেকে ওই ৮১ হাজার ব্যবহারকারীর মধ্যে থেকে পাঁচজনের সঙ্গে কথা বলা হয়। তাঁরাও স্বীকার করে নেন, যে অ্যাকাউন্টগুলি হ্যাকাররা বিক্রি করছে, সেগুলি তাঁদেরই। শুধুমাত্র বার্তা নয়, ছবি–সহ অন্যান্য জিনিসের সঙ্গেই ওই প্রোফাইলগুলি বিক্রি করা হচ্ছে। এই ঘটনায় বেশি প্রভাবিত হয়েছে ইউক্রেন এবং রাশিয়ার ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। তালিকায় রয়েছে ব্রিটেন, আমেরিকা, ব্রাজিল–সহ অন্যান্য দেশের গ্রাহকরাও। যদিও ফেসবুক জানিয়েছে, এতে তাঁদের কোনও গাফিলতি নেই। অন্য কোনও ব্রাউজার (‌‌বিশেষ করে যেগুলিতে ভাইরাস থাকতে পারে)‌‌ ব্যবহার করার ফলেই ওই ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য হ্যাকারদের হাতে চলে গিয়েছে। ফেসবুকের এক কর্তার কথায়, ‘‌ব্রাউজার যাঁরা তৈরি করেন আমরা তাঁদের সঙ্গে গোটা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছি। তাঁদের জানিয়েছি ব্রাউজারে ক্ষতিকারক এক্সটেনশন যাতে না থাকে সেদিকে নজর দিতে।’ তিনি আরও জানান, ‘‌আমরা গোটা বিষয়টি নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থাও নিয়েছি। স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে ওই ওয়েবসাইট, যেখানে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বিক্রির বিজ্ঞাপণ দেওয়া ছিল, সেটিকে বন্ধ করে দেওয়ার কথাও জানিয়েছি।’‌‌ যদিও এই আশ্বাস সত্ত্বেও ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মন থেকে ভয় দূর হওয়ার নয়। কারণ এই প্রথম নয়, চলতি বছরে বেশ কয়েকবার প্রশ্নের মুখে পড়েছে ফেসবুকের সুরক্ষা ব্যবস্থা। গোটা বিশ্বজুড়েই তা নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top