আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যার জন্মদিন, সে রইল কয়েক হাজার মাইল দূরে ভিন গ্রহে। আর পৃথিবীতে তার ৬ বছরের জন্মদিনের উৎসব করল তার নির্মাতারা। কথা হচ্ছে নাসার রোভার কিউরিওসিটি নিয়ে। কিউরিওসিটি যখন সম্পূর্ণ নিঃসঙ্গ অবস্থায় মহাজাগতিক ঝড়তুফানের মধ্যে ঠায় দাঁড়িয়ে থেকে আরও নতুন তথ্য সংগ্রহে ব্যস্ত, তখন নাসায় তার জন্মদিনের উৎসবে মেতে ওঠেন বিজ্ঞানী, ইঞ্জিনিয়ার এবং কর্মীরা।
মঙ্গল থেকে পাঠানো টুইটার বার্তায় কিউরিওসিটি পৃথিবীকে লিখে পাঠিয়েছে, ‘‌৬ বছর আগে আমি মঙ্গলে নেমেছিলাম। এখন আমার ৬ বছরের জন্মদিন পালন করছি মঙ্গলের থেকে পাওয়া উপহার আয়রন অক্সাইড দিয়ে।’‌ কিউরিওসিটির টুইটের উত্তরে নাসা তার একাকিত্বের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে লিখেছে, ‘‌একদিন মানুষ ওই ধুলোভরা লাল গ্রহে যাবে। তখন তারা তোমাকে আলিঙ্গন করবে। দারুনভাবে তোমার জন্মদিন পালন করবে। তারপর যখন তোমার অবসরের সময় আসবে তখন মিউজিয়ামে রাখা হবে তোমায়। যাতে পৃথিবীর পরবর্তী প্রজন্ম তোমার অনন্য কীর্তির কথা জানতে পারে।’‌ 
২০১২ সালে মঙ্গলের গালে গহ্বরে রোবট মহাকাশযান কিউরিওসিটিকে নামিয়েছিল সানা। তারপর কেটে গিয়েছে ৬ বছর। এই সময়ের মধ্যে মঙ্গল সম্পর্কে বহু অজানা তথ্য নিয়ম করে পাঠিয়ে গিয়েছে কিউরিওসিটি। যা মঙ্গল নিয়ে গবেষণার কাজে অত্যধিক সহায়ক হয়েছে মহাকাশ বিজ্ঞানীদের পক্ষে। গত ২০ জুন থেকে মঙ্গলে চলা ধুলোর ঝড়ের মধ্যে দাঁড়িয়ে রয়ে কিউরিওসিটি। ঝড়ে উড়তে থাকা ধূলিকণা, তার পরিমাণ এবং কীভাবে সেগুলি আলো আকর্ষণ এবং প্রতিফলন করে সে সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করছে। এর আগে নাসার পাঠানো বিভিন্ন মহাকাশযান উপর থেকে এই ঝড় নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চালিয়েছিল। কিন্তু কিউরিওসিটি সেব্যাপারে একদম পৃথক বলে জানিয়েছে নাসা। ওই তথ্য পেলে মহাকাশের ঝড় সম্পর্কে আরও বিশদে জানতে পারবেন বিজ্ঞানীরা।    

জনপ্রিয়

Back To Top