আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভারতবর্ষে নতুন প্রজাতির এপের সন্ধান পেয়েছেন পুরাতত্ত্ববিদরা। প্রায় ১ কোটি ৩০ লক্ষ বছর পুরনো এপের জীবাশ্মটি পাওয়া গিয়েছে জম্মু-কাশ্মীরে। ‘রয়্যাল সোসাইটি বি’র জার্নালে এমনই দাবি পুরাতত্ত্ববিদদের। 
‘রয়াল সোসাইটি বি’র জার্নাল সূত্রে জানা গিয়েছে, উধমপুর জেলার রামনগর এলাকায় বহু পুরনো কিছু জিনিসপত্রের সন্ধান মেলার খবর বিজ্ঞানীরা পেয়েছিলেন বেশ কিছুদিন আগেই। সেই খবরের সূত্র ধরেই জম্মু–কাশ্মীরে পৌঁছেছিলেন পুরাতত্ত্ববিদদের একটি দল। যাতে আমেরিকার অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতত্ত্ব বিষয়ক গবেষক এবং পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতত্ত্ব বিভাগের গবেষকরা ছিলেন। গত বছর থেকেই রামনগরের বিভিন্ন এলাকায় সন্ধান চালাচ্ছিলেন তাঁরা। বছরের শুরুর দিকে স্থানীয় এক পাহাড়ের দিকে গিয়েছিলেন। সেখানে আবর্জনার মধ্যে একটি চকচকে জিনিস নজরে পড়ে গবেষকদের। কাছে যাওয়ার পর দেখা যায় তা মাড়ির দাঁত। দেখা মাত্রই গবেষকরা বুঝতে পারেন দাঁতটি কোনও সাধারণ প্রাণীর দাঁত নয়। তা সংগ্রহ করে গবেষণাগারে নিয়ে আসা হয়।
এর আগে অনেক জীবাশ্ম খুঁজে পেয়েছেন গবেষকরা। তবে তাঁদের দাবি, এই দাঁতটি ভিন্ন। দাঁতটি এক নতুন প্রজাতির এপের বলে দাবি গবেষকদের। যা প্রায় ১ কোটি ৩০ লক্ষ বছরের পুরনো। মনে করা হচ্ছে, সেই সময় সুদূর আফ্রিকা থেকে এশিয়ার পথে চলে এসেছিল প্রাণীটি। প্রাথমিক পরীক্ষা–নিরীক্ষার পর গবেষকদের একাংশের ধারণা, এটি কোনও বানর প্রজাতিরও হতে পারে। এমনকী উল্লুখ প্রজাতির পূর্বপুরুষ হতে পারে।
এর আগে রামনগর এলাকায় এমন কিছু খুঁজে পাওয়া যায়নি। নতুন এই প্রাপ্তিতে উৎসাহিত পুরাতত্ত্বের গবেষকরা। এত পুরনো প্রজাতির এপের জীবাশ্মের সন্ধান এই প্রথম পেলেন তাঁরা। জীবাশ্মটি আরও ভালভাবে পরীক্ষা করে দেখা হবে। 

জনপ্রিয়

Back To Top