৩৮ বছরের বার্ষিক অধিবেশন। চন্দননগর গল্পমেলা। হল চন্দননগর জ্যোতিরিন্দ্রনাথ সভাগৃহে। ৯–‌‌১০ ডিসেম্বর। গল্পপাঠ, বিতর্ক, আলোচনায় অংশ নিলেন স্বপ্নময় চক্রবর্তী, সুকান্ত গঙ্গোপাধ্যায়, অম্লানকুসুম চক্রবর্তী, সুন্দর মুখোপাধ্যায়, সাদিক হোসেন, শমীক ঘোষ, নলিনী বেরা, জয়ন্ত দে, অরিন্দম বসু, রুশতী সেন–সহ অনেকে। এবারে মেলার মূল বিষয় ও পত্রিকার বিষয় ছিল ‘‌‌জ্যোতিরিন্দ্র নন্দী’‌। সংকলনটি প্রকাশ করেন প্রশান্ত মাজি। এবার নতুন একটি পুরস্কারও চালু হয়, জ্যোতিপ্রকাশ চট্টোপাধ্যায় জীবনকৃতি পুরস্কার। প্রাপক সুধীর চক্রবর্তী। গল্পমেলা পুরস্কার পান সাহিত্যিক তৃপ্তি সান্ত্রা (‌সঙ্গের ছবিতে)‌। অনাদি স্মারক সম্মান দেওয়া হয় গল্পচক্রের কর্ণধার কানাই কুণ্ডুকে। গল্প পাঠ করেন অমর মিত্র, রমাপদ লাহিড়ী প্রমুখ। শেষে ছিল স্লাইড শো। গল্পমেলাকে ফিরে দেখা। সঙ্কলক রাজেশ কুমার। গল্পমেলার কর্ণধার সাহিত্যিক গৌর বৈরাগী জানান, পশ্চিমবঙ্গ তো বটেই, ভারতের অন্য প্রান্ত থেকেও গল্পের টানে এসেছিলেন বহু সাহিত্যিক। সব অর্থেই সার্থক প্রয়াস। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top