সঙ্কর্ষণ বন্দ্যোপাধ্যায়: অবশেষে এলেন অরণ্যদেব। না, এই অরণ্যদেব কমিক স্ট্রিপের সেই বিখ্যাত নায়ক নন। যদিও এই ছবিতেও আছে এক সুপারহিরোর ছোঁয়া, আসলে এই গল্প দুই বন্ধুর বন্ধুত্বকে ঘিরে। যাদের একজনের নাম অরণ্য, অন্যজনের নাম দেব।
‘‌বাইসাইকেল কিক’‌-‌এর পর এটা পরিচালক দেবাশিস সেনশর্মার দ্বিতীয় ছবি। যার শুটিং শুরু হয়েছিল ২০১৪-‌তে। এবার সেই ছবি মুক্তি পেল জি ফাইভ ডিজিট্যাল অ্যাপে। কেন এই ছবি হলে মুক্তি না পেয়ে শেষ পর্যন্ত ডিজিট্যাল অ্যাপে মুক্তি পেল?‌ এই প্রসঙ্গে দেবাশিস সেনশর্মার বক্তব্য, ‘‌হলে গিয়ে এখন মানুষ ছবি দেখতে চান না। আর হলে মুক্তি পেলেও সেই ছবি সম্পর্কে দর্শকের ওয়াকিবহাল হতে হতেই হল থেকে সেই ছবি সরে যায়। ফলে এই ছবি আর দেখার সুযোগ থাকে না। তাই ডিজিট্যাল অ্যাপেই মুক্তি পেল এই ছবি, যেখানে দর্শক ইচ্ছে করলেই স্মার্ট ফোনে এই অ্যাপ ডাউনলোড করে দেখতে পাবেন এই ছবি।’‌ জানালেন, ‘‌শুধু বাংলা নয়, এই ছবি ডাব করা হয়েছে আরও পাঁচটি ভারতীয় ভাষায়—হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মালায়লম এবং মারাঠি।’‌
ছবিতে অরণ্য ও দেব—দুই বন্ধুর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন যিশু সেনগুপ্ত ও মীর। একই সঙ্গে দুই ভিন্ন কলকাতার গল্প বলবে এই ছবি। একটি কলকাতা একেবারে অত্যাধুনিক, যে কলকাতায় বাস করে দেব বা মীর এবং অন্যটি একটু পিছিয়ে পড়া অলস প্রকৃতির কলকাতা, যার অন্যতম সদস্য অরণ্য বা যিশু।

ছোটবেলার ঘনিষ্ঠ এই দুই বন্ধুর হঠাৎ দেখা হল ২৫ বছর পরে। তারপর কী ঘটল?‌ এই ছবিতে বলা হয়েছে ২৫ বছর পরের সেই একটি দিনের কথা।
যিশু বললেন, ‘‌এই ছবিটা আমাদের সবার গল্প, যারা নিজেদের মধ্যে এক সুপারহিরোর উপস্থিতি অনুভব করতে চাই। এই ছবি দেখে একদিকে যেমন বড়রা নিজেদের ছোটবেলাকে ফিরে পাবে, তেমনই ছোটরাও আনন্দ পাবে। অরণ্যর চরিত্র সম্পর্কে বলব, যে কোনও অভিনেতার কাছেই এটা একটা প্রিয় চরিত্র। এরকম একটা চরিত্রের জন্যে পরিচালক দেবাশিস যে আমার কথা ভেবেছে তাতে আমি খুশি।’‌ আর মীর জানালেন, ‘‌আমার অভিনীত দেব চরিত্রটি একজন কর্পোরেট ব্যক্তিত্ব। যার স্ত্রী ও মেয়ে আছে। এবং দেব পুরোমাত্রায় অ্যাম্বিশাস। ‘‌ভূতের ভবিষ্যৎ’‌-‌এর ভুতোরিয়া চরিত্রে অভিনয় করে যেমন আনন্দ পেয়েছিলাম, এই চরিত্রে অভিনয় করেও তেমনই আনন্দ পেয়েছি। দেব যদি সত্যিই একজন সুপারহিরো হত, একটা প্রাণ বাঁচানোর ক্ষমতা তার থাকতো, তবে কেমন হত সেই ব্যাপারটা চমৎকারভাবে ছবিতে তুলে ধরেছে দেবাশিস।’‌
প্রসঙ্গত জি ফাইভ ডিজিট্যাল অ্যাপে এটাই প্রথম বাংলা মৌলিক ছবি। মীর বা যিশু ছাড়াও এই ছবির বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন অরুণিমা ঘোষ, শ্রীলেখা মিত্র, সুদীপা বসু, পরান বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রয়াত দ্বিজেন বন্দ্যোপাধ্যায়, সোহিনী সরকার, দেবারতি চক্রবর্তী প্রমুখ। দর্শক জি ফাইভ অ্যাপ ডাউনলোড করলেই ছবিটি দেখতে পাবেন।

জনপ্রিয়

Back To Top