এটিকে–মোহনবাগান ১   কেরালা ব্লাস্টার্স ০
(‌রয় কৃষ্ণা)‌ 
আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফর্ম ইজ টেম্পোরারি, ক্লাস ইজ পারমানেন্ট। বুঝিয়ে দিলেন রয় কৃষ্ণা। গত আইএসএল ফাইনালে চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন। এদিন যখন ৮২ মিনিটে মাঠ ছাড়লেন, তার আগে কাজের কাজটি করে দিয়েছেন। ৬৭ মিনিটে কেরালা বক্সে একটি লুজ বল পেয়ে রিসিভ করেই বাঁ পায়ে বলটি জালে জড়ালেন এটিকে–মোহনবাগানের প্রাণভোমরা। আইএসএলের উদ্বোধনী ম্যাচে এটিকে–মোহনবাগান ১–০ ব্যবধানে হারাল কেরালা ব্লাস্টার্সকে। পরিবর্ত ফুটবলার মণবীরের পাসে গোল করে যান রয় কৃষ্ণা। 
এই ম্যাচে কত রং। বাগানকে আই লিগ দেওয়া কিবু ভিকুনা বিপক্ষ বেঞ্চে। প্রথমার্ধ বাগানকে আটকে রেখেছিলেন কিবু। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে রয় কৃষ্ণাই ম্যাচের রং বদলে দিলেন। আইএসএলের ডার্বির আগে অক্সিজেন পেয়ে গেল মোহনবাগান। 
এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই দু’‌দল মেপে খেলছিল। কেউ বাড়তি ঝুঁকি নেয়নি। তার মধ্যেই বিক্ষিপ্ত কিছু সুযোগ এসেছিল। রয় কৃষ্ণা বক্সের বাইরে লুজ বল পেয়ে বাইরে মারলেন। কেরালার সামাদ সহজ সুযোগ নষ্ট করলেন। কিন্তু সব কিছু ছাপিয়ে এই ম্যাচ থেকে গেল রয় কৃষ্ণার নামে। তিনিই ম্যাচের সেরা। খেলা শুরুর ৪ মিনিটের মাথায় সুযোগ পেয়ে গিয়েছিল মোহনবাগান। জাভি হার্নান্ডেজের কর্নার থেকে আসা বল গোলে ঠেলতে পারেননি রয় কৃষ্ণা। শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার সহজ সুযোগ হারায় মোহনবাগান।
ডেভিড উইলিয়ামসে এদিন শুরু থেকে রাখেননি কোচ হাবাস। ট্যাকটিক্যাল ডিসিশন। সুসাইরাজ এদিন চোট পান ১৪ মিনিটের মাথায়। তার বদলে মাঠে নামলেন শুভাশিস বসু। এদিনের ম্যাচে আর সমস্যা হয়নি। কিন্তু সুসাইরাজের চোট চিন্তায় রেখে দিল হাবাসকে। 
কেরলের সেরা সুযোগ এসেছিল ৩৬ মিনিটের মাথায়। নাওরেম আক্রমণ উঠে এসে দুরন্ত ক্রস বাড়ান। কিন্তু সেই শটে মাথা ছোঁয়াতে পারেননি হুপার। গোলের সেরা সুযোগ হাতছাড়া করে কেরল। জন্মদিনে হারের মুখ দেখতে হল কেরালা কোচ কিবুকে। 
সোশ্যাল মিডিয়ায় খেলা শুরুর আগে থেকেই বাগান সভ্য–সমর্থকদের মধ্যে তুমুল উন্মাদনা। ম্যাচ জেতার পর তা আরও বেড়ে গেল। প্রহর গোনা শুরু আগামী শুক্রবারের। আইএসএল ডার্বিতে মোহনবাগানের সামনে ওইদিন ইস্টবেঙ্গল যে!‌ 

জনপ্রিয়

Back To Top