আজকাল ওয়েবডেস্ক: পুলিশের জীবনেও আসে অপ্রত্যাশিত আনন্দঘন মুহূর্ত।‌ এমনই এক নজির দেখা গেল উত্তরপ্রদেশে। থানায় বসে তখন কাজ করছিলেন দারোগাবাবু। মনঃসংযোগ তৈরি হয়েছিল কারণ ভিড় ছিল না। এমন সময় তিনি অনুভব করলেন মাথায় কে যেন আঙুল বোলাচ্ছে। ঘাড় ঘোড়াতেই যা দেখলেন তাতে চোখ কপালে ওঠার জোগাড়।
কী দেখলেন তিনি?‌ একদৃষ্টিতে তিনি দেখলেন, মাথার চুলে বিলি কাটছে আস্ত এক বাঁদর। লম্বা ল্যাজ ঝুলিয়ে চেয়ারের পিছনে বসে আছে সে। এই ছবি এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। সেখানে দেখা যাচ্ছে বাঁদরটি বিলি কাটছে না, মাথার উকুন বাছছে। তবে প্রথমে চমকে গেলেও পরে বাঁদরের কাছ থেকে এমন মাথার মালিশ পেয়ে আপ্লুত পিলিভিট জেলার সর্দার কোতওয়ালি থানার পুলিশকর্তা। 
যে পুলিশের মাথা থেকে উকুন বাছছিল বাঁদরটি তাঁর নাম শ্রীকান্ত দ্বিবেদি। তবে বাঁদরের উকুন বাছার ঘটনা দেখে অন্য সহকর্মীরা চেঁচামেচি জুড়লেও দিব্যি খোসমেজাজে কাজ চালিয়ে গিয়েছেন তিনি। ভিডিওটি দেখে হেসে উঠেছেন নেটিজেনরা। একজন টুইটারে লেখেন, বাঁদরটি নিশ্চয়ই ওই পুলিশকর্মীর বন্ধু। অন্যজন আবার লিখেছেন, স্যারের জন্য নিখরচায় পরিষেবা। 
জানা গিয়েছে, পিলিভিট জেলায় একটি ব্যাঘ্র অভয়ারণ্যও রয়েছে। রাজ্যের পর্যটন দপ্তরের ওয়েবসাইট অনুযায়ী, ৭৩০ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে এই অরণ্য অঞ্চল দেশের ৪৫তম স্থানে রয়েছে এবং এখানে রয়েছে ১২৭ প্রজাতির প্রাণী, ৩২৬ প্রজাতির পাখি এবং ২ হাজারেরও বেশি ফুলের গাছ। সেখান থেকেই এই বাঁদর এসেছিল বলে মনে করা হচ্ছে। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top