আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অ্যানাবেলকে কে না চেনে?‌ সেই ছোট্ট পুতুল যা তাকেই আশ্রয় দেওয়া পরিবারকে নিশ্চিহ্ন করতে ব্যগ্র। প্রকৃত অ্যানাবেল পুতুলকে দেখতে আজও আমেরিকার কানেটিকাটের দ্য ওয়ারেনস্‌ ওকাল্ট মিউজিয়ামে ভিড় করেন উৎসাহীরা। আর পৃথিবীর অন্যতম ভয়ঙ্কর এই পুতুলের কাজকারবার নিয়ে হলিউডি হরর সিরিজ তাকে জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছে দিয়েছে। এই সিরিজের আগামী ছবি ‘‌অ্যানাবেল কামস্‌ হোম’‌–এর মুক্তির অপেক্ষায় সিনেমাপ্রেমীরা।
এর মধ্যেই সামনে এসেছে এধরনেরই একটি পুতুলের কাহিনী যা মনে পড়িয়ে দিচ্ছে অ্যানাবেলের ভয়াবহতাকে। নিউ ইয়র্কের বাসিন্দা দুই বন্ধু ২০১৬ সালে পাহাড়ি অঞ্চলে ট্রেকিং–এ গিয়ে একটি গুহার ভিতরে একটি পুতুল দেখতে পেয়ে সেটি নিয়ে আসেন বাড়িতে। তাঁদের অভিযোগ, তারপর থেকেই তাঁরা নানান ধরনের ভৌতিক কাজের প্রভাবে পড়েন। পুতুলটি তাঁদের প্রায় মেরে ফেলার চেষ্টা করলে পর সেটিকে তাঁরা অপ্রাকৃতিক এবং ভৌতিক কাজকর্মের বিশেষজ্ঞ দম্পতি গ্রেগ এবং ডানা নেওয়ার্ককে দিয়ে দেন।
এরপর নেওয়ার্ক দম্পতিও পুতুলের কোপে পড়ে। গ্রেগ জানাচ্ছেন, একদিন তাঁর স্ত্রী ডানা তাঁকে ধাক্কা দিয়ে তুলে বলেন, তাঁদের শোওয়ার ঘরের মধ্যে এক মহিলা দাঁড়িয়ে আছে। ঘরের মধ্যে ভিজে পায়ের ছাপ দেখতে পান তাঁরা। এরপর কখনও তাঁর স্ত্রী তাঁকে ধমক দেন সোফার উপর ভিজে পায়ে দাঁড়ানোর জন্য তো কখনও ঘরের বাল্ব বদল করে ফেলার জন্য। কিন্তু ভিজে পায়ের ছাপ ছিল সোফার পিছন দিকে, দেওয়ালের দিকে মুখ করা। একদিন তাঁরা টিভি দেখছিলেন বসার ঘরে, তখন শোওয়ার ঘরে ভারী কিছু পড়ার শব্দে ছুটে যান। প্রথমে তাঁরা ভেবেছিলেন তাঁদের দুটি পোষ্য বিড়াল মারামারি করছে। কিন্তু তাঁরা গিয়ে দেখেন বিড়াল দুটি বিছানার তলায় ঘুমিয়ে। বলছেন গ্রেগ। ডানা বললেন, একদিন তিনি অফিস থেকে ফিরে দেখতে পান তাঁদের বাড়ির দেওয়ালে আটকানো যিশুর মূর্তিটি কেউ উপড়ে নিয়েছে। শুধু যিশুর ক্রুশবিদ্ধ হাত দুটি দেওয়ালে আটকানো। ভৌতিক বিশেষজ্ঞ দম্পতি এরপর নিজেদের ঘরে ক্যামেরা লাগান। সেখানেই ধরা পড়ে পুতুলটি নিজে থেকেই তার স্থান বদল করছে প্রায় এক ইঞ্চি করে।
এরপর নেওয়ার্ক দম্পতি পুতুলটি ট্র‌্যাভেলিং মিউজিয়াম অফ দ্য প্যারানর্মাল অ্যান্ড ওকাল্ট–এ দান করে দেন। কিন্তু সেখানেও পুতুলের ভুতুড়ে কাজকর্মের প্রভাব পড়তে থাকে। গ্রেগ বললেন, মিউজিয়ামের এক কর্মী ওই পুতুলটির দেখভাল করছিলেন। আচমকা তাঁর মুখ দিয়ে রক্তবমি হতে থাকে এবং হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। সেই খবর পেয়ে আর দেরি না করে যে পাহাড়ি গুহা থেকে ওই পুতুলটি আনা হয়েছিল, সেখানেই সেটি কবর দিয়ে আসেন তাঁরা, জানালেন গ্রেগ এবং ডানা নেওয়ার্ক।
ছবি:‌ ডেইলি স্টার

জনপ্রিয়

Back To Top