আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ শিল্পী তিনি। একাধিক বিতর্কিত শিল্প সৃষ্টির জন্য বেশ নাম ডাক আছে মারিনা আব্রামোভিকের। স্বভাব বশতই একটি আর্ট গ্যালারিতে ৬ ঘণ্টা শিল্পের জন্য নিজেকে উৎসর্গ করেছিলেন তিনি। ঘোষণা করেছিলেন এই ৬ ঘণ্টা তাঁকে নিয়ে যা ইচ্ছে করতে পারেন যে কেউ। এর মাধ্যমে বিশ্বকে তিনি দেখাতে চান মানুষের স্বভাবের আসল সত্যিটা। বাস্তবে কী ঘটল তা জানলে গায়ে কাঁটা দেবে। নিজের সামনে একটি টেবিল পেতে তাতে বেশ কয়েকটি ৭২টি জিনিস। যে গুলি তাঁর উপর ব্যবহার করতে পারেন যে কেউ। এমনই ছিল ঘোষণা। টেবিলে ছিল গোলাপ, পালক, আঙুর, মধু, কন্ডোম, একটি বাঁশি, একটি গুলি এবং একটি বন্দুক। প্রথম কয়েক ঘণ্টা বেশ ভালই আচরণ করা হচ্ছিল তাঁর সঙ্গে। কেউ তাঁকে জল খাওয়াচ্ছিলেন, তো কেউ তাঁর সঙ্গে খেলা করছিলেন। কয়েকঘণ্টা পার হতেই মানুষের কু রূপ বেরিয়ে আসতে শুরু করে।  শুরু হয় তাঁর জামা কাপড় ছেঁড়া। প্রায় নগ্ন করে ফেলা হয় মারিনাকে। গোলাপের কাঁটা গায়ে বেঁধানো হয়। ব্লেড দিয়ে গা কাটতে শুরু করা হয়। অনেকে আবার তাঁর সঙ্গে সঙ্গম করার চেষ্টা করেন। শ্লীলতাহানী চলতে থাকে যতক্ষণ না কেউ এসে বাধা দিচ্ছে। কেউ আবার তাঁকে বন্দুকে গুলি করে নিজের মাথায় চালাতে বলেন। এতটাই চরম পর্যায়ে চলে গিয়েছিল পরিস্থিতি যে ৬ ঘণ্টা পার হতেই গ্যালারির মালিক এসে দর্শকদের সেখান থেকে বের করে দিতে বাধ্য হন। ‌‌

 

ঘটনার সময় এমনই অবস্থা হয়েছিল শিল্পীর। 

জনপ্রিয়

Back To Top