আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পড়াশোনা করার বয়স হয় না। সময় হয় না। হলেই বা কোনও রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী!‌ তাতে কি পড়াশোনা আটকায়!‌ ইচ্ছা থাকলেই উপায় হয়। সেকথা আবারও প্রমাণ করে দেখালেন জাগরনাথ মাহাতো। ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী।
২৫ বছর আগে ছেড়েছিলেন পড়াশোনা। এবার ফের শুরু করতে চান। তাই একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হবেন বলে আবেদন করলেন ৫৩ বছরের মাহাতো। বোকারোর সরকারি দেবী মাহাতো ইন্টার–কলেজে ভর্তি হয়ে পড়াশোনাটা চালাতে চান। নিয়মিত স্কুল যেতে চান।
সেই ১৯৯৫ সালে মাধ্যমিক পাশ করেন। তার পর আর পড়া হয়নি। পাকেচক্রে সেই জাগরনাথ মাহাতোই আজ রাজ্যের মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী। মন্ত্রী হওয়ার পর থেকে শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে হেয় হতে হয়েছে। লোকে আঙুল তুলেছেন। এসব আর সহ্য করতে পারছেন না মন্ত্রী। 
সংবাদ মাধ্যমকে জানালেন, ‘‌ক্রমাগত সমালোচনা আমায় পড়াশোনা শুরু করার অনুপ্রেরণা দিয়েছে। যখন থেকে ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী হয়েছি, তখন থেকে একদল লোক আমার শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। তাই সিদ্ধান্ত নিলাম, ফের পড়ব।’‌ 
একাদশ শ্রেণীতে কলা বিভাগে ভর্তি হবেন দুমরির এই বিধায়ক। বললেন, ‘‌শিক্ষা দপ্তরের সঙ্গে সঙ্গে নিজের শিক্ষাটাও চালাব। আমি এক জন রাজনীতিক। তাই রাষ্ট্রবিজ্ঞান অবশ্যই নেব। বাকি বিষয় নিয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেব।’‌ রাজ্যের শিক্ষা দপ্তর সামলে কীভাবে রোজ ক্লাস করবেন?‌ মন্ত্রীর উত্তর, ‘‌আগে নিয়ম মেনে আমার আবেদন গৃহীত হোক। তার পর দেখব, কীভাবে কাজ আর পড়ায় ভারসাম্য রাখি।’‌
ঝাড়খণ্ডে ৮১ জন বিধায়ক রয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৩০ জন নির্বাচনী হলফনামায় জানিয়েছিলেন, যে তাঁদের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর মধ্যে। ৪৯ জন স্নাতক বা স্নাতকোত্তর পাশ করেছেন।  

জনপ্রিয়

Back To Top