আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ এ যেন অক্ষয়কুমার–অন্নু কাপুর অভিনীত হিট ছবি ‘‌জলি এলএলবি–২’‌–র বাস্তব রূপ। বলিউডি ছবিটিতে আদালতের মুহুরির ছেলে অক্ষয়কুমারও ছিলেন এক শীর্ষস্থানীয় আইনজীবীর সহকারী। দুঁদে আইনজীবী অন্নু কাপুরকে হারিয়ে প্রায় হেরে যাওয়া একটি মামলা জিতে ন্যায় পাইয়ে দেন একটি পরিবারকে। ঠিক তেমনভাবেই আর্থিক সহ বহু প্রতিকূলতা সত্ত্বেও শুধু মেধার জোরেই বিচারক নিয়োগের পরীক্ষা ‘‌সিভিল জাজ ক্লাস–২ রিক্রুটমেন্ট টেস্ট’‌ পাস করলেন মধ্য প্রদেশের ইনদওর জেলা আদালতের চালক গোবর্ধনলাল বাজাদের ছেলে চেতন বাজাদ। চেতন বললেন, ‘‌আমি সবসময় বিচারক হতে চেয়েছিলাম। আমার বাবা এবং ঠাকুরদাকে আদালতের হয়ে কাজ করতে দেখেই সেটা আমার জীবনের লক্ষ্য হয়ে গিয়েছিল। আমি সকাল ৮টায় লাইব্রেরি পৌঁছে যেতাম পড়াশোনার জন্য আর রাত ১০টা নাগাদ ফিরে দেখতাম বাড়ির সবাই রাতের খাবারের জন্য আমার জন্য অপেক্ষা করছে। আমি নিজের কর্তব্য সততার সঙ্গে করব। যথাসাধ্য চেষ্টা করব ন্যায়বিচার করতে যাতে আমি সমাজের কাছে একটা উদাহরণ পেশ করতে পারি।’ চেতনের অসাধারণ সাফল্যে আনন্দের জোয়ার বইছে বাজাদ পরিবারে। চেতনের বাবা, মা দুজনেই জানালেন তাঁরা অত্যন্ত খুশি যে তাঁদের ছেলে চালক নয় বিচারকের আসনে বসতে চলেছেন। 
ছবি:‌ এএনআই       

জনপ্রিয়

Back To Top