আজকাল ওয়েবডেস্ক: ভারী বৃষ্টিতে উপচে ওঠা বাঁধের একটি পাথরের উপর বসে প্রাণ বাঁচাতে কোনওরকমে গাছের ডাল আঁকড়েছিলেন টানা ১৬ ঘণ্টা। অবশেষে বায়ুসেনার এমআই–১৭ চপার সোমবার সকালে তাঁকে উদ্ধার করল। ঘটনাটি ঘটেছে ছত্তিশগড়ের বিলাসপুরে কুটাঘাট বাঁধে। জনপ্রিয় পিকনক স্পট বলে পরিচিত কুটাঘাট বাঁধে প্রায়ই ছুটিছাটায় প্রচুর জন সমাগম হয়। কোভিড মহামারীর মধ্যেও রবিবারও সেখানে বহু মানুষ গিয়েছিলেন। জিতেন্দ্র কাশ্যপ নামে ৩৪ বছরের ওই যুবকও তাঁদেরই একজন বলে প্রাথমিক তদন্তে জানিয়েছে পুলিশ। তিনি স্থানীয় গুধৌরি গ্রামের বাসিন্দা। বিলাসপুর রেঞ্জের আইজি দীপাংশু কাবরা জানিয়েছেন, রবিবার সন্ধ্যায় বাঁধের ওয়েস্টওয়াটার ওয়্যার বা জমা জলের অংশে নেমেছিলেন কোনও কারণে। কিন্তু তারপরই ভারী বর্ষণে বাঁধের জলস্তর বেড়ে যায় এবং স্রোতের তীব্র টানে আর উপরে উঠে আসতে পারেননি জিতেন্দ্র। রাতভর বাঁধের উপরেই একটি পাথরের উপর বসেছিলেন তিনি এবং বাঁধের পাশে থাকা গাছের একটি ডাল ধরে কোনওরকমে নিজেকে রক্ষা করেছিলেন। আবহাওয়া খারাপ থাকায় এবং টানা বর্ষায় জলের তোড় অত্যধিক বেশি থাকায় অনেক চেষ্টার পরও জিতেন্দ্রকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ এবং জেলা প্রশাসন। খবর পেয়ে সকালে বায়ুসেনা ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। তারপর রাজ্য পুলিশের সঙ্গে যৌথভাবে উদ্ধারকাজ চালিয়ে এমআই–১৭ চপারে করে জিতেন্দ্রকে এয়ারলিফ্‌ট করে আনে বায়ুসেনা। তাঁকে রায়পুরের রামকৃষ্ণ কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
গত প্রায় তিনদিন ধরে চলা ভারী বর্ষণে ছত্তিশগড়ের বেশিরভাগ নদীই প্লাবিত হয়ে গিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ সিং বাঘেল সব মন্ত্রী, অফিসারদের পরিস্থিতি তদারক করতে নির্দেশ দিয়েছেন।
ছবি:‌ এএনআই    

জনপ্রিয়

Back To Top