আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ইতিহাসের নানা তথ্য থেকে পাওয়া যায় পৃথিবীতে যৌনপল্লী তৈরি হয় অনেক প্রাচীনকাল থেকেই। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পৃথিবীর বহু দেশে যৌনপল্লীর বৈধতা দেওয়া হয়েছে। এমনকি সেখানের যৌনকর্মীরা নাকি আয়করও দেন। যৌনপল্লীতে পেশায় সুন্দরী মেয়েদের দেখা যায়। কিন্তু যৌন পেশায় এবার থেকে দেখা যাবে পুতুলদেরও। শোনা মাত্রই অনেকে অবাক হবেন। লন্ডনের দি ইনডিপেন্ডেন্টে সংবাদ সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জার্মানির ডর্টমুন্ড শহরে পুতুলের যৌনপল্লীটি চালু করেছেন এভলিন সোয়ার্জ নামে এক স্থানীয় তরুণী। এভলিন তার সেন্টারের নাম দিয়েছেন ‘বোরডল’। 
এভলিন সোয়ার্জ দি ইনডিপেন্ডেন্টের কাছে দাবি করেছেন পৃথিবীতে এই প্রথম তিনি চালু করেছেন পুতুলের যৌনপল্লী। তার এই পল্লীতে ১১টি ‘‌স্বপ্ন সুন্দরী’‌ পুতুল রয়েছে। এভলিনের সুন্দরী পুতুলের সঙ্গে সময় কাটাতে গেলে প্রতি ঘণ্টায় খরচ করতে হবে ৮০ ইউরো (‌সাত হাজার ৮০০ টাকা)‌। এভলিন সোয়ার্জ এই পুতুল নিয়ে জানান, এশিয়া থেকে এই পুতুলগুলি আনা হয়েছে। প্রতিটি পুতুলের দাম পড়েছে এক হাজার ৭৮৬ ইউরো (‌এক লাখ ৭৪ হাজার টাকা)‌। পুতুলগুলি খুবই উচ্চমানের এবং এর ওজন ৩০ কেজি। এলভিন তার যৌনপল্লী নিয়ে বলেন, জনপ্রিয়তা এতটাই পেয়েছে, অনেকে স্ত্রীকে গাড়িতে অপেক্ষায় রেখে টাকা খরচ করে যান পুতুলের পেছনে।

এভলিন সোয়ার্জের সুন্দরী পুতুল।

জনপ্রিয়

Back To Top