আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পুরনো প্রবাদ, বিড়ালের গলায় ঘণ্টা যে বাঁধতে পারবে জিত তারই। সেই পুরনো প্রবাদটারই একটু অদলবদল করেছে ইন্দোনেশিয়ার মধ্য সুলাওয়াসি প্রদেশের প্রশাসন। প্রাদেশিক গভর্নরের ঘোষণা, ১৩ ফুট কুমিরের গলা থেকে মোটরবাইকের টায়ার খুলে দিতে পারলেই বিপুল অঙ্কের নগদ অর্থ পুরস্কার হিসেবে মিলবে। আর তা তিনি দেবেন নিজের পকেট থেকেই। ঘটনার সূত্রপাত কয়েক বছর আগে। মধ্য সুলাওয়াসির রাজধানী পালুতে নোনাজলের একটি জলাশয়ে একটি কুমিরের গলায় ঢুকে যায় বাইকের টায়ার। প্রশাসনিক অফিসার, বনকর্মী এবং বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ বিভাগের কর্মীরা দীর্ঘদিন ধরে চেষ্টা করেও কুমিরের গলা থেকে টায়ারটি খুলতে পারেননি। অথচ ক্রমশ টায়ারটি চেপে বসছে কুমিরের গলায় এবং প্রাণীটি শ্বাস নিতে হাঁসফাঁস করছে। সেই ভিডিও ফুটেজও তুলেছেন বনকর্মীরা। সেই ফুটেজ দেখেই গভর্নর বুদ্ধি বের করেন যে, যদি কেউ কুমিরের গলা থেকে টায়ার খুলতে পারেন প্রাণীটির কোনও ক্ষতি না করে তাহলে তাঁকে নিজের পকেট থেকেই বিপুল অঙ্কের নগদ অর্থ পুরস্কার হিসেবে দেবেন গভর্নর। তবে সঙ্গে তিনি এও ঘোষণা করেছেন যে, এজন্য কোনও শিক্ষানবীশ বা আনকোরা কাউকে তিনি অনুমতি দেবেন না। বরং কুমির নিয়ে গবেষণায় সিদ্ধহস্ত মানুষদেরই এই কাজে মূলত আহ্বান জানিয়েছেন গভর্নর। মধ্য সুলাওয়াসির প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ সংগঠনের প্রধান হাসমুনি হাসমার বলেছেন, স্থানীয় মানুষদের আবেদন করা হয়েছে যাতে তাঁরা কুমিরদের আবাসস্থলের কাছাকাছি না আসেন।
ছবি:‌ ব্যাংকক পোস্ট

জনপ্রিয়

Back To Top