আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যুবতীর ডিম্বাশয় থেকে ৫০ পাউন্ডের সিস্ট বের করলেন চিকিৎসকরা। ঘটনাটি অ্যালাবামার।  ৩০ বছরের কায়লা রাহ্‌ন বেশ কিছু বছর ধরেই ক্রমাগত মোটা হচ্ছিলেন। ডায়েট, ব্যায়াম, কিছুতেই কমছিল না ওজন। তার সঙ্গে ছিল তলপেটে অসহ্য ব্যাথা। এতটাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন তিনি যে একবার বাড়ি ফিরে মাকে প্রশ্ন করেন, তাঁর পেটে যমজ সন্তান আছে কিনা দেখতে। এরপরই অ্যালাবামার মন্টোগোমারির জ্যাকসন হাসপাতালে মেয়েকে ভর্তি করেন কায়লার বাবা, মা।

 
পরীক্ষার ধরা পড়ে কায়লার ডিম্বাশয়ে রয়েছে ৫০ পাউন্ড ওজনের একটি বিশাল সিস্ট। ন্যাশনাল ওভারিয়ান ক্যান্সার কোয়ালিশন বা এনওসিসি জানিয়েছে, কায়লার সিস্টের বৈজ্ঞানিক নাম বেনাইন মিউসিনাস সিস্টাডিনোমা। এধরনের সিস্টে ক্যান্সার হওয়ার ভয় থাকে না। এগুলি একধরনের এপিথেলিয়াল টিউমার যা ডিম্বাশয়ের বাইরের কোষে বেড়ে ওঠে। তবে প্রায় ৮৫–৯০ শতাংশ মহিলার সারা বিশ্বে মৃত্যু হয় ডিম্বাশয়ের যে সিস্ট থেকে সেগুলিতেই ক্যান্সার হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

 চিকিৎসকরা বলছেন, এধরনের সিস্ট সাধারণত বড় আকারেরই হয়। কিন্তু এত বিশাল সিস্ট তাঁরা আগে কখনও দেখেননি। কীভাবে এটা এত বড় হল সেবিষয়ে হতবাক চিকিৎসকরা।
চিকিৎসকরা চিন্তিত হলেও অস্ত্রোপচারের পর ফুরফুরে মেজাজে কায়লা। হঠাৎ করেই অনেকটা ওজন ঝরে যাওয়ায় খুশি কায়লা বললেন, এখন তিনি সেই সব পোশাক পরতে পারবেন যা তিনি একবছর আগেও গায়ে দিতে পারতেন না। কায়লা আশাবাদী, তাঁর কাহিনী সেই সব মেয়েদের অস্ত্রোপচারে উৎসাহিত করবে যাঁরা শরীরে খুঁৎ হওয়ার আশঙ্কায় জরুরি চিকিৎসায় ভয় পান।           

জনপ্রিয়

Back To Top