আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সন্ধে ঘনাতেই বাড়ির বাইরে খুব একটা দেখা যায় না কাউকেই। তারপরে আবার স্কটল্যান্ডের অ্যাবেডিন। ফাঁকা ফাঁকা এলাকা । বেশিরভাগই বাগানবাড়ি। হঠাৎ এক ব্যক্তি তাঁর বাড়ির বাগানে দেখতে পান কোনও এক বন্যজন্তু বসে আসেছে। আতঙ্কে সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় থানায়। ভয়ার্ত কণ্ঠে তিনি পুলিসকে জানান তাঁর বাড়ির বাগানে বাঘ ঢুকেছে। খবর পাওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যে বনদপ্তরের কর্মীদের নিয়ে এলাকায় হাজির  হয় পুলিস। খবরটা তখন দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়েছে অ্যাবেডিনের হ্যাটন এলাকায়। আতঙ্কে বাড়ির বাইরে পা রাখছিলেন না কেউ। কাছেই রয়েছে বনাঞ্চল। সকলেই ভেবেছিলেন সেখানে থেকেই এসেছে কোনও বন্যজন্তু। বাগানে বাঘের অবয়ব দেখে পুলিসও বাঘই বুঝেছিল।

এলাকাবাসীকে সুরক্ষিত রাখতে কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয় গোটা এলাকা। সকলকে বাড়ির ভেতরে থাকতে বলা। ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে যায় মিডিয়া কভারেজ। 
অতি সন্তর্পণে বাগানে ঢোকেন তাঁরা। ধীরে ধীরে সেদিকে এগোতে থাকেন বনদপ্তরের কর্মীরা। কিন্ত একি এত লোকজন এসে পড়েছে তবু নিজের জায়গা থেকে একটুও নড়েনি সেই বাঘ। দিব্য খোস মেজাজে বসে রয়েছে। তারপরেই সন্দেহ বাড়তে থাকে বনকর্মীদের। একটু কাছে যেতেই তাঁরা বুঝতে পারেন বাঘ আসল নয় নকল। একটি বড় সফট টয়কে কেউ বাগানে বসিয়ে রেখেছিলেন। অন্ধকার নামতে সেটাকেই আসল বাঘ বলে ভেবেছিলেন বাড়ির মালিক। 
পুরো ঘটনাটি বেশ মজাকরে ট্যুইট করে জানান হ্যাটলের পুলিস দপ্তর। ৫ ফেব্রুয়ারির এই ঘটনা ইতিমধ্যেই ১০০০ জন শেয়ার করে ফেলেছেন। নর্থ ইস্ট পুলিস ডিভিশন তাঁদের ফেসবুক পেজেও ঘটনাটির বিবরণ ছবি সহ প্রকাশ করেছেন। 

জনপ্রিয়

Back To Top