আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অজানা প্রকৃতির অপরিচিত জীবজগতের আরেকটা ছবি সামনে এল। অস্ট্রেলিয়ার নর্দার্ন টেরিটরিতে আর্নহেম হাইওয়ের উপর তিন চোখওয়ালা সাপের দেখা পেলেন বনকর্মীরা। স্থানীয় সময় বুধবার রাতে অদ্ভূত ওই সাপের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছে নর্দার্ন টেরিটরি পার্কস অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ। মুহূর্তে ভাইরাল হয়েছে সেই ছবি। বন দপ্তর সূত্রে খবর, মার্চ মাসে কার্পেট পাইথন প্রজাতির ওই সাপটি খুঁজে পান বনকর্মীরা। সাপটির তখন মাত্র তিন মাস বয়স ছিল। রেঞ্জার রে চ্যাটো বললেন, ‘‌সাপের কপালের উপর থাকা তৃতীয় চোখটা আসলে প্রাণীটির শারীরিক অস্বাভাবিকতা। এভাবে সাপটি কী করে এতদিন বেঁচে ছিল সেটাই অবাক কান্ড। কারণ খাবার খাওয়ার জন্য রীতিমতো কষ্ট করছিল সেটি। গত সপ্তাহে সাপটি মারা যায়।’
নর্দার্ন টেরিটরি পার্কস অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ সূত্রে খবর, সাপটি খুঁজে পাওয়ার পর বনকর্মীরা তার যত্ন নিয়েছিলেন। কিন্তু যেহেতু তিনটি চোখই কাজ করত সেজন্য সাপটি ঠিকভাবে খেতে পারত না। প্রাথমিকভাবে তাঁরা মনে করেছিলেন, জন্মের মুহূর্তে দুটি সাপ জুড়ে গিয়ে একটি সাপ তৈরি হয়, যেভাবে মানুষের মধ্যে কনজয়েন্ড টুইন্স বা জোড়া যমজ শিশু জন্মায়। তাহলে দুটি করোটি থাকার কথা। কিন্তু এক্সরে–তে দেখা গিয়েছে, একটি করোটির মধ্যেই অতিরিক্ত একটি নেত্রগহ্বর আছে এবং তিন চোখই একসঙ্গে কাজ করছে। ফলে একটি সাপের মাথাতেই তিনটি চোখ। বনকর্মীরা বলেছেন, এধরনের শারীরিক অস্বাভাবিকতা জীবজগতে মাঝেমাঝেই দেখা যায়।     

জনপ্রিয়

Back To Top