আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অবশেষে জলপাইগুড়ির সহকারী ট্রেজারি অফিসার নাদির শাহ–এর রহস্য মৃত্যুতে মুখ খুললেন তাঁর স্ত্রী রাখি শাহ। তাঁর দাবি, একাধিক মহিলার সঙ্গে বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল নাদিরের। সেজন্য মানসিক টানাপোড়েনে ভুগতেন তিনি। সেই মানসিক চাপ সামলাতে না পেরেই আত্মহত্যা করেছেন নাদির। রাখির অভিযোগ, তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকেরা চক্রান্ত করে তাঁকে ফাঁসিয়েছে। মাত্র বছরখানের আগেই বিয়ে হয়েছিল নাদির–রাখির। জলপাইগুড়িতে স্বামীর সরকারি আবাসনে মাস আটেক আগে থাকতে গিয়ে থাকতে শুরু করেন রাখি।

এর আগে নাদির সম্পর্কে একই অভিযোগ করেছিলেন রাখির আত্মীয়রাও।
গত ১৪ ডিসেম্বর ভোররাতে জলপাইগুড়ির সরকারি আবাসনে তাঁদের দোতলার ফ্ল্যাটে ৩২ বছরের নাদিরের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছিল। রাখি প্রতিবেশীদের কাছে দাবি করেন, দাম্পত্য কলহের পর নাদির ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেন। পরে দরজা ভেঙে পুলিস দেহ উদ্ধার করে। বড়বাজারের বাসিন্দা নাদির জলপাইগুড়ি ট্রেজারি অফিসে সহকারী অফিসার পদে কর্মরত ছিলেন। ওই ঘটনায় তদন্তে নেমে গত মাসেরই শেষের দিকে রাখিকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিস।

 

নাদির এবং রাখি শাহ। ফাইলচিত্র

জনপ্রিয়

Back To Top