অভিজিৎ চৌধুরি‌,মালদা: খোলাবাজারে পেঁয়াজ ৮০ টাকা কেজি। এদিকে পেঁয়াজ চলে যাচ্ছে সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে। প্রশ্ন উঠছে নানা মহলে। দেশে এমনিতেই পেঁয়াজের উৎপাদন কম। বাংলাদেশে রপ্তানি করায় পেঁয়াজের দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে বলে অভিযোগ। পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের বক্তব্য, পেঁয়াজের লরি আসছে কম তাই দাম বাড়ছে। 
মালদা জেলায় পাইকারি বাজার ইংরেজবাজার নিয়ন্ত্রিত বাজার সমিতি। সেখানে চাহিদার তুলনায় পেঁয়াজের লরি কম ঢুকেছে। ব্যবসায়ীদের বক্তব্য, মহদিপুর সীমান্ত দিয়ে লরি লরি পেঁয়াজ চলে যাচ্ছে বাংলাদেশ। পুজোর আগে থেকেই পেঁয়াজের দাম আকাশছোঁয়া। পেঁয়াজ ছাড়াতে গিয়ে চোখের জল ফেলতে হয়। এখন কিনতে গিয়ে চোখের জল ফেলতে হচ্ছে। জেলা পুলিশ সুপার অলক রাজোরিয়া বলেন, ‘‌আমাদের কিছু করার নেই। শুল্ক দপ্তরের অনুমতি নিয়েই সীমান্তে রপ্তানি হচ্ছে পেঁয়াজ। দেখতে হবে বেআইনি কিছু হচ্ছে কিনা।’‌
অভিযোগ উঠেছে কম এলওসি ( লেটার অফ ক্রেডিট) নিয়ে বেশি মাল পাঠানো হচ্ছে। অর্থাৎ ওভারলোডিং হচ্ছে। পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ওভারলোডিং নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে। জেলা শাসক রাজর্ষি মিত্র বলেন, ‘‌ রপ্তানি রাজ্য সরকারের এক্তিয়ারে নেই।’‌ জেলা ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক জয়ন্ত কুণ্ডু বলেন, ‘‌বাংলাদেশ রপ্তানিতে কেন্দ্র সরকার যদি অনুমতি দেয়, তাহলে কারও কিছু করার নেই। ’‌

কলকাতার বাজারে খদ্দের নেই। ওদিকে, পেঁয়াজ ভর্তি লরি বাংলাদেশের পথে। মহদীপুর সীমান্ত এলাকায়। ছবি:‌ পিটিআই ও প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top