মুনাল চট্টোপাধ্যায়
সদ্যসমাপ্ত মরশুমে আই লিগে অংশ নিয়েছিল ১১ দল। নতুন মরশুমে খেলবে ১২ দল। এমনই জানালেন আই লিগ সিইও সুনন্দ ধর। তিনি বলেন, ‘বুধবার ভিডিও কনফারেন্সে কার্যকরী কমিটির সভায় ঠিক হয়েছে ২০২০–‌‌২১ মরশুমে আই লিগ ১২ দলের হবে। এটিকে–র সঙ্গে জুড়ে মোহনবাগান আইএসএলে চলে যাওয়ায় এখন আই লিগের দলসংখ্যা ইস্টবেঙ্গলকে ধরে ১০। আই লিগ দ্বিতীয় ডিভিশন থেকে আসবে একটি দল। নতুন একটি দলকে নেওয়া হবে দরপত্রের মাধ্যমে। যেখানে কোনও টিম নেই, এমন একটা জায়গা থেকে দল বাছার কথা ভাবা হচ্ছে। দিল্লির সুদেভা এফ সি দু’‌বছর ধরে আই লিগ খেলার আগ্রহ দেখাচ্ছে। দিল্লি ডায়নামোজের জায়গায় ওরা এলে ভাল হবে। বিড পেপার ছাড়া হবে ওদের খেলার সুযোগ দিতে।’‌ 
নতুন মরশুমের প্রতিযোগিতাগুলো শুরুর সম্ভাব্য দিন ভাবা হয়েছে?‌ সুনন্দ জানান, একটা প্রাথমিক পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে সকলের সঙ্গে আলোচনা করে। ইচ্ছা আছে শিলংয়ে আগস্টের শেষে বা সেপ্টেম্বরের গোড়ায় ফুটসল ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপ দিয়ে মরশুম শুরু করার। আইএসএল এবং আই লিগের প্রথম ও দ্বিতীয় ডিভিশনের দলগুলোকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। ইস্টবেঙ্গল, এটিকে, মোহনবাগান এখনও কিছু না জানালেও সাড়া দিয়েছে মহমেডান। ভিন রাজ্যের অনেক ক্লাব সম্মতি জানিয়েছে। তিন সপ্তাহের লিগ কাম নকআউট টুর্নামেন্টে কেরলের গোকুলাম এফসি আইএম বিজয়নকে খেলানোর উদ্যোগ নিচ্ছে। বিজয়ন এখনও নিয়মিত তাঁর অফিস দল কেরল পুলিশ এবং সেভেন–এ–সাইড টুর্নামেন্ট খেলেন। 
ফুটসলের পর সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি বা শেষ থেকে অক্টোবরের মাঝামাঝি ফেডারেশন কাপের আদলে লিগ কাম নক আউট ফরম্যাটে আই লিগ দ্বিতীয় ডিভিশনের কোয়ালিফাইং টুর্নামেন্ট করার কথা ভাবা হয়েছে। এবার আর আইএসএলের রিজার্ভ দলগুলো খেলবে না। ৮ দলকে দুটো গ্রুপে ভাগ করে প্রথমে লিগ খেলানো হবে। গ্রুপের প্রথম স্থানে থাকা দুটি করে দল মুখোমুখি হবে সেমিফাইনালে। ফাইনালে বিজয়ী দল আই লিগের প্রথম ডিভিশনে খেলবে। সব ঠিকঠাক চললে প্রথম ডিভিশন আই লিগের খেলা অক্টোবরে পুজো পেরিয়ে নভেম্বরে করা যেতে পারে।’‌ 
 

জনপ্রিয়

Back To Top