আজকালের প্রতিবেদন, শিলিগুড়ি, ৪ জানুয়ারি- কেউ গান বাউল, কেউ বিষহরা। বৈরাতি নৃত্য কিংবা বাঁশের খেলায় কেউ পারদর্শী। উত্তরবঙ্গের এমন লোকশিল্পীরা মিলিত হলেন ফাঁসিদেওয়ায়। ব্লকে ছড়িয়ে থাকা লোকশিল্পীরা দেখালেন প্রতিভা। বৃহস্পতিবার তাঁরা জড়ো হয়েছিলেন ফাঁসিদেওয়ার নজরুল মঞ্চে। এবারই সেখানে প্রথম সম্মেলন করল লোকপ্রসার শিল্পী মঞ্চ। রাজ্যে তৃণমূল ক্ষমতায় আসার পর লোকশিল্পীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। সমস্ত শিল্পীর তালিকা তৈরি করা হয়েছে। তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের মাধ্যমে মিলছে ভাতা। সবচেয়ে বড় পাওনা, শিল্পীরাই সরকারি প্রচার করছেন। এরও পারিশ্রমিক মিলছে। একদিকে তাঁদের আয় হচ্ছে, অন্যদিকে প্রতিভায় শান দেওয়া যাচ্ছে। এদিন ওই সম্মেলনের উদ্বোধনে গিয়েছিলেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। তিনি বলেন, একসময় আর্থিক দৈন্যতায় ভুগেছেন শিল্পীরা। মমতা ব্যানার্জি তাঁদের সমস্যা দূর করতে উদ্যোগ নিয়েছেন। শিল্পীরা তাই আজ রাজ্য সরকারের সঙ্গে রয়েছেন। ছিলেন মহিলা তৃণমূলের জেলা সভানেত্রী সুস্মিতা সেনগুপ্ত। তিনি রাজ্য সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের কথা তুলে ধরেন। জেলায় লোকশিল্পীদের পাশে থেকে তিনি কাজ করেছেন। ফাঁসিদেওয়া ব্লক–১ তৃণমূলের সভপতি আইনুল হক বলেন, এখন শিল্পীরা আর বঞ্চিত নন। তাই তৃণমূলের তলায় এসে লোকশিল্পীরা মঞ্চ তৈরি করেছেন। এদিন সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মঞ্চের ফাঁসিদেওয়া–১ ব্লক সভাপতি মিঠু রহমান, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মহম্মদ বসিরুদ্দিন। 

ফাঁসিদেওয়ায় লোকশিল্পীদের সম্মেলনে গৌতম দেব।ছবি:‌ গিরিশ মজুমদার
 

জনপ্রিয়

Back To Top